গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা, যুবক আটক

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা, যুবক আটক

কুমিল্লা প্রতিনিধি ১২:৩৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৫, ২০১৯

গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা, যুবক আটক

কুমিল্লায় এক গৃহবধূকে কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার ভোরে জেলার আদর্শ সদর উপজেলার কালিরবাজার ইউনিয়নের হাতিগাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায় নিহতের নাম শানু বেগম (৪৫)। তিনি ওই গ্রামের ফরিদ মিয়ার স্ত্রী।

পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দেলোয়ার হোসেন (২৮) নামে এক প্রতিবেশী যুবককে আটক করেছে। তিনি একই এলাকার মৃত আবদুর রহমানের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ভোরে শানু বেগম তার রান্না ঘরে বসে পিঠা তৈরি করছিলেন। এসময় ওই ঘরে প্রবেশ করেন প্রতিবেশী দেলোয়ার হোসেন। ভোর রাতে রান্নাঘরে ঘরে যাওয়ার কারণ জানতে চাইলে দেলোয়ার হোসেন ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। এ নিয়ে বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে শানু বেগমকে বটি দা দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে ও গলায় আঘাত করে ঘর থেকে পালিয়ে যান দেলোয়ার। চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন শানুকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে শানু বেগমকে কুপিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকার লোকজন দেলোয়ার হোসেনকে আটক করে বেঁধে রাখেন। পরে পুলিশ এসে তাকে থানায় নিয়ে যায়।

কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার ওসি মো. আনোয়ারুল হক জানান, নিহতের গলায় ও শরীরের বিভিন্ন অংশে দা-বটির আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। তদন্তের পর হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে বলা যাবে।

তিনি জানান, অভিযুক্ত যুবক দেলোয়ারকে স্থানীয়রা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। শুধু বাক-বিতণ্ডার জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড নাকি নেপথ্যে অন্য কোনো কারণ আছে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

জেডএস/এসবি

 

কুমিল্লা: আরও পড়ুন

আরও