কুমিল্লায় ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা সোয়া ৩০০ ছাড়িয়ে

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

কুমিল্লায় ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা সোয়া ৩০০ ছাড়িয়ে

জহির শান্ত, কুমিল্লা ১২:০৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ০৭, ২০১৯

কুমিল্লায় ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা সোয়া ৩০০ ছাড়িয়ে

কুমিল্লার হাসপাতালগুলোতে ক্রমেই বাড়ছে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়তে থাকা ডেঙ্গু রোগীর এ সংখ্যাটা সোয়া ৩০০ ছাড়িয়ে গেছে। এরমধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় (মঙ্গলবার থেকে বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) কুমিল্লা মেডিকেলসহ জেলার ৩টি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩০জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছেন।

সব মিলিয়ে কুমিল্লায় ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা ৩২৫ জনেরও বেশি। যার অধিকাংশই চিকিৎসাধীন কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে। এতে করে বাড়তি চাপ সামলাতে হচ্ছে হাসপাতালের চিকিৎসক ও নার্সদের। তবে কুমেক কর্তৃপক্ষ বলছেন, ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসায় সকলেই যথেষ্ট আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালন করছেন।

কুমেকের ভর্তি নিবন্ধন খাতা থেকে জানা যায়, ২৩ জুলাই থেকে গতকাল ৬ আগস্ট পর্যন্ত গত দুই সপ্তাহে শুধুমাত্র কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেই ২৯৫ জন রোগী ডেঙ্গু চিকিৎসার জন্য ভর্তি হয়েছেন। এদের মধ্যে ৮ শিশু ও ৩০জন নারী ও ২৫৭জন পুরুষ।

অপরদিকে দাউদকান্দি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১৫ জন, চান্দিনায় ৫ জন, হোমনায় ৫ জন এবং তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২জন ডেঙ্গু আক্রান্ত ব্যক্তি চিকিৎসা নেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। এ চারটি উপজেলায় এখনো ১০/১২জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন আছেন।

এছাড়া কুমিল্লা নগরীর অন্তত তিনটি বেসরকারি হাসপাতালে ৫ জন ডেঙ্গু রোগীর চিকিৎসা নেয়ার খবর পাওয়া গেছে। যাদের একজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পথে মারা যান। মৃত ব্যক্তির নাম আনোয়ার হোসেন (৪২)। তিনি সদর উপজেলার কাটানিসার গ্রামের বাসিন্দা। গত ৪ আগষ্ট কুমিল্লা মেডিকেল সেন্টার হাসপাতাল থেকে ঢাকায় নেয়া হলেও হাসপাতালে ভর্তির পূর্বেই তিনি মারা যান বলে জানান আনোয়ারের এক নিকটাত্মীয়।

কুমেক সূত্রে জানা যায়, হাসপাতালটিতে ভর্তি হওয়া ২৯৫ রোগীর মধ্যে ১৭৬জন ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন আছেন ১১৯জন। হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের তিনটি ওয়ার্ডে ডেঙ্গু রোগীদের জন্য আলাদাভাবে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

হঠাৎ করেই কুমিল্লা মেডিকেলে ডেঙ্গু রোগীর চাপ বেড়ে যাওয়ায় তাদের জায়গা সঙ্কুলান ও চিকিৎসা নিয়ে বাড়তি চাপ সামলাতে হচ্ছে ডাক্তার ও নার্সদের। যদিও কুমেক কর্তৃপক্ষ বলছেন, ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসায় সকলেই যথেষ্ট আন্তরিক।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক স্বপন কুমার অধিকারী বলেন, সময় যতো গড়াচ্ছে, ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ততোই বাড়ছে কুমেকে। গত ২৪ ঘন্টায় ১শিশু, ৩ নারীসহ ২৩জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীকে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে হাসপাতালে ৩ শিশু, ৭ নারীসহ ১১৯জন রোগী ভর্তি আছেন।

দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ জালাল হোসেন জানান, গত এক সপ্তাহে ১৫ রোগী দাউদকান্দি (গৌরীপুর) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সেবা নিয়েছেন । এখন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ৪ জন ভর্তি রয়েছেন।

জেডএস/

 

কুমিল্লা: আরও পড়ুন

আরও