বাসাভাড়া নেয়ার কথা বলে স্বর্ণালঙ্কার লুট করে এই দম্পতি

ঢাকা, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

বাসাভাড়া নেয়ার কথা বলে স্বর্ণালঙ্কার লুট করে এই দম্পতি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি ৯:৩৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৮, ২০১৯

বাসাভাড়া নেয়ার কথা বলে স্বর্ণালঙ্কার লুট করে এই দম্পতি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরে এক প্রতারক দম্পতিকে আটক করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে জেলা শহরের মুন্সেফপাড়া থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটকরা হলেন, কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের মৃত আব্দুল কাদের জুয়েল মাহমুদ (৪৫) ও তার স্ত্রী ফাতেমা বেগম (৪৫)।

পুলিশ জানায়, এই দম্পতি দেশের বিভিন্ন জায়গায় ফ্লাট বাসা ভাড়া নেয়ার কথা বলে সবকিছু লুটে নেয়। গত কিছুদিন আগে জেলা শহরের ফুলবাড়ীয়ায় মহিউদ্দিন আহমেদ নামে একজন লোকের বাড়িতে ফ্লাট ভাড়া নিতে আসে এই দম্পতি। ফ্ল্যাটটি দেখে তারা পছন্দ করে ২ হাজার টাকা অগ্রিম ভাড়া পরিশোধ করে। এর কয়েকদিন পর গত ১৩ নভেম্বর তারা পুনরায় আসে মাছ নিয়ে। মাছগুলো বাড়ির মালিক মহিউদ্দিনের পরিবারকে দিয়ে বলে, এগুলো তাদের নিজের ডোবার দেশীয় মাছ। মহিউদ্দিনের পরিবারের সদস্যদের মন জয় করে নেয় তারা। এসময় তারা জানায় স্বর্ণের কাজ জানেন।

মহিউদ্দিনের মেয়ে ও স্ত্রীকে তারা বলেন, স্বর্ণ ঘরে বসেই চকচকে করে ফেলতে পারেন। তাদের কথা শুনে মহিউদ্দিনের মেয়ে ও স্ত্রী তাদের শরীরের স্বর্ণালঙ্কার প্রতারক দম্পতিকে দেয় পরিষ্কার করে দিতে।

এ সময় মহিউদ্দিনের স্ত্রীকে তারা বলেন, পানি পান করবেন। মহিউদ্দিনের স্ত্রী পানি নিয়ে এসে দেখেন তারা স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে পালিয়ে গেছেন। তার মেয়ে অচেতন হয়ে পড়ে রয়েছে। এ ঘটনার বিস্তারিত উল্লেখ করে মহিউদ্দিনের মেয়ে ফেসবুকে পোস্ট করেন।

এ ঘটনার কয়েকদিন পর গত ১৫ নভেম্বর মহিউদ্দিনের বাড়ির পাশের এলাকার মুন্সেফপাড়ায় রফিকুল ইসলামের বাড়িতে এই দম্পতি একই কায়দায় বাসা ভাড়া নিতে যায়। এসময় ওই প্রতারক দম্পতি রফিকুল ইসলামের পরিবারকে জানিয়ে আসেন তারা রোববার আসবেন বাসা ভাড়ার চুক্তি করতে। মহিউদ্দিনের মেয়ের দেয়া ফেসবুক পোস্টটি রফিকুল ইসলামের মেয়ের চোখে পড়ে। রফিকুল ইসলামের মেয়ে মহিউদ্দিনের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে কথা বলে তাদের সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনাটির মিল খুঁজে পায়।

দুই পরিবার রোববার প্রতারক দম্পতিকে আটক করতে অপেক্ষা করতে থাকেন। কিন্তু রোববার ওই দম্পতি না আসলে ফোন দিয়ে আসতে বলা হয়, সোমবার যেন আসে এবং তাদের খাওয়া-দাওয়া করতে রান্না করে রাখা হবে।

সোমবার দুপুরে প্রতারক দম্পতি রফিকুল ইসলামের বাড়িতে পেঁপেসহ ফলমূল নিয়ে আসেন। এসময় স্থানীয়দের সহায়তায় এই প্রতারক দম্পতিকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

এর আগে, গত ৫ নভেম্বর কিশোরগঞ্জের ভৈরব থানা এলাকায় মাতৃকা জেনারেল হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হুমায়ুন কবির মিন্টুর বাড়িতে বাসা ভাড়া নিতে যায় এই প্রতারক দম্পতি। এসময় এই প্রতারক দম্পতি ৩ লাখ ৮০ হাজার টাকার স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে পালিয়ে যায়।

এছাড়াও দেশের বিভিন্ন এলাকায় এই দম্পতি বাসা ভাড়ার কথা বলে প্রতারণা করে স্বর্ণালঙ্কার লুটে নেয়ার অভিযোগ রয়েছে।

সদর মডেল থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) শিমুল পারভেজ জানান, ‘এই প্রতারক দম্পতিকে আটকের খবর জেনে অনেক ভুক্তভোগী সদর থানায় এসেছেন। তারা এই প্রতারকদের সনাক্ত করেছেন। বিভিন্ন জায়গায় ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেছেন। কিন্তু সদর মডেল থানায় এখনো কেউ অভিযোগ দেয়নি।’

এএসআই জানান, ‘যেহেতু তাদের প্রতারণার শিকার অনেকে হয়েছেন। তাই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশ মুতাবেক আমরা কাজ চালিয়ে যাচ্ছি।’

এআর/এইচআর

 

চট্টগ্রাম: আরও পড়ুন

আরও