রাতে সড়কে নিম্নমানের কাজ, বন্ধ করে দিলো এলাকাবাসী

ঢাকা, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

রাতে সড়কে নিম্নমানের কাজ, বন্ধ করে দিলো এলাকাবাসী

আবদুল্লাহ আল-মামুন, ফেনী ৮:০৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৫, ২০১৯

রাতে সড়কে নিম্নমানের কাজ, বন্ধ করে দিলো এলাকাবাসী

ফেনীর সোনাগাজীতে সড়কে রাতের আঁধারে নিম্নমানের কাজের অভিযোগে নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।

বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের চরডুব্বা গ্রামের সোনাপুর-শহীদ মানু মিয়ার বাজার সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী জানায়, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর সোনাপুর-শহীদ মানু মিয়ার বাজার সড়কের এক কিলোমিটার নির্মাণ কাজের জন্য ৬৩ লাখ ৪ হাজার ৩শ ৫৩ টাকা বরাদ্দ দেয়। নির্মাণ কাজটি বরাদ্দ পায় ফেনীর এএসএন কনস্ট্রাকশন নামের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

ওই প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধিকারী জিয়াউর রহমান নামের ব্যক্তির কাছে কাজটি অঘোষিতভাবে বিক্রি করে দেন। কাজটির ক্রেতা জিয়াউর রহমান দরপত্র মোতাবেক নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার না করে নিম্নমানের মেকাডম, ময়লাযুক্ত সুরকি ও বিটুমিন ব্যবহার করে তড়িঘড়ি করে রাতের আঁধারে নির্মাণ কাজ করেন।

বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী একত্রিত হয়ে বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে কাজ বন্ধ করে দেন।

খবর পেয়ে শুক্রবার সকালে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর ফেনীর নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শাহ আলম পাটোয়ারী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এসময় তিনি সাংবাদিকদের জানান, নির্মাণ কাজে কিছুটা ত্রুটি বিচ্যুতি পাওয়া গেছে। সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারকে ত্রুটি বিচ্যুতি পরিহার করে দরপত্র মোতাবেক নির্মাণ কাজ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

চরডুব্বা গ্রামের সমাজপতি মকবুল আহম্মদ জানান, অবহেলিত এই জনপদের সড়কটির এক কিলোমিটার পাকাকরণের জন্য গ্রামের বাড়ি বাড়ি থেকে চাঁদা তুলে অজ্ঞাত স্থানে ওই টাকা পাঠিয়ে উন্নয়ন কাজ বরাদ্দ করা হয়েছে। কিন্তু এই অবস্থায় গ্রামবাসী কোনো অবস্থাতে নিম্নমানের কাজ মেনে নেবেন না। স্থানীয় ইউপি সদস্য নিজাম উদ্দিন শাহীনও একই অভিযোগ করেন।

আমিরাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জহিরুল আলম জহির জানান, তিনি ঘটনাটি শুনেছেন ও ব্যবস্থা নিতে স্থানীয় সরকার বিভাগের কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে জিয়াউর রহমান মুঠোফোনের লাইন কেটে দেন। বার বার ফোন দেয়ার পরও তিনি রিসিভ করেননি।

এইচআর

 

চট্টগ্রাম: আরও পড়ুন

আরও