বখাটে ছেলের অত্যাচারে আইনের আশ্র‍য় চাইলেন বাবা-মা

ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ | ৪ কার্তিক ১৪২৬

বখাটে ছেলের অত্যাচারে আইনের আশ্র‍য় চাইলেন বাবা-মা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি ১১:১৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ০৩, ২০১৯

বখাটে ছেলের অত্যাচারে আইনের আশ্র‍য় চাইলেন বাবা-মা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে বখাটে ছেলের অত্যাচারে বাড়ি ছেড়েছেন অসহায় পিতা-মাতা। উপজেলার বুধন্তী ইউনিয়নের খাতাবাড়ী গ্রামের বৃদ্ধ নূর মিয়া ও তার বৃদ্ধা স্ত্রী আনোয়ারা খাতুন অসহায়ভাবে দিন যাপন করছেন।

পাড়ার মাতাব্বরদের কাছে ধরণা দিয়েও কোনো সুরাহা না পেয়ে অবশেষে আইনের আশ্রয় নিয়েছে এই দম্পত্তি।

মামলা সূত্রে জানা যায়, নূর মিয়ার ৫ ছেলে। এরমধ্যে বাড়ির থাকেন দুইজন। বাড়িতে থাকেন বাকি ৩ জন। কিন্তু কেউই নূর মিয়া ও তার স্ত্রীর দায়িত্ব নিতে চান না। শুধু তাই নয়, মাদকাসক্ত হয়ে টাকার জন্য তাদের চতুর্থ ছেলে মো: আনু মিয়া দীর্ঘ ধরে তাদেরকে শারিরীক ও মানসিক ভাবে অত্যাচার করে আসছে। বিগত কিছু দিন পূর্বে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার জন্মদাতা পিতা নূর মিয়াকে আক্রমণ করে গুরুতর আহত করলে তার আঘাতপ্রাপ্ত স্থানে তিনটি সেলাই করতে হয়।

সমাজের কিছু লোক বিচার ব্যবস্থা করবে বলে আশ্বাস দিয়েও কোনো বিচারের ব্যবস্থা করেনি। তার ছেলে আনু মিয়ার নির্যাতন দিন দিন বাড়তে থাকলে উপায় না দেখে জীবন বাঁচাতে আইনের আশ্রয় নেয় বৃদ্ধ নূর মিয়া ও তার অসুস্থ্য স্ত্রী।

নুর মিয়া জানান, আমি একজন অসহায় মানুষ ছেলের অত্যাচারে আজ আমি ঘর ছাড়া। কয়েকদিন আগে আমার বুকের মধ্যে উঠে ‘দা’নিয়ে আমাকে জবাই করে মেরে ফেলার চেষ্টা করে আনু মিয়া আশেপাশের লোকজন এসে আমাকে উদ্ধার করে। আমি কোনো কথা বললেই মারধর করে।

নূর মিয়ার স্ত্রী আনোয়ারা খাতুন জানান, আমাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিলে আমি মারাত্মকভাবে আহত হয়ে দীর্ঘদিন সজ্জাশায়ী থাকতে হয়। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠতে পারেনি। তার অত্যাচারে আমরা ঘর ছেড়েছি। আমরা এর বিচার চাই।

এ ব্যাপারে বিজয়নগর থানার অফিসার ইনচার্জ ফয়জুল আজিম নোমান বলেন, অভিযোগটি পেয়েছি বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক অসহায় মানুষদের জন্য বিজয়নগর থানা সর্বোচ্চ সহযোগিতা করবে। আমরা খোঁজ নিয়ে দ্রুত এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

এআর/এআরই

 

চট্টগ্রাম: আরও পড়ুন

আরও