চট্রগ্রামে হত্যা মামলার আসামি বন্দুকযুদ্ধে নিহত

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯ | ২ কার্তিক ১৪২৬

চট্রগ্রামে হত্যা মামলার আসামি বন্দুকযুদ্ধে নিহত

চট্টগ্রাম ব্যুরো: ৫:৪৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৯

চট্রগ্রামে হত্যা মামলার আসামি বন্দুকযুদ্ধে নিহত

চট্টগ্রাম মহানগরের চান্দগাঁওয়ে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন হত্যা মামলার এক আসামি। শুক্রবার রাত দুইটার দিকে নগরীর দর্জিপাড়ার পাশে জেলেপাড়ায় খোলা মাঠে এ ঘটনা ঘটে। এর আগে ওই আসামিকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করে চট্টগ্রাম নিয়ে আসে পুলিশ।

নিহত মো. রাসেল (২৩) নগরীর চান্দগাঁও থানার দর্জিপাড়া এলাকার মৃত আবুল বশরের ছেলে।

কিছুদিন আগে রাসেলের ছুরিকাঘাতে প্রাণ হারায় জিয়াদ হোসেন নামের এক তরুন।

সিএমপির চান্দগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কালাম বলেন, রাসেলের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ। সেখানে পূর্ব থেকে ওঁৎপেতে থাকা রাসেলের সহযোগিদের আক্রমন এবং পুলিশের পাল্টা আক্রমনে রাসেল গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়। 

ওসি বলেন, ক্যাবল অপারেটরের নিকট চাঁদা না পাওয়ায় গত ১৫ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় নগরীর চান্দগাঁও থানার সানোয়ারা আবাসিক এলাকার পাশে দর্জিপাড়ায় মো. জাহেদ হোসেন নামের এক যুবককে আটকে রেখে হত্যার চেষ্টা চালায় রাসেল ও তার সহযোগীরা।

সে সময় বড়ভাই জাহেদকে বাঁচাতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে মারা যায় ছোট ভাই জিয়াদ হোসেন (২৩)। এ ঘটনায় রাসেলকে প্রধান আসামি করে তিনজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন মৃত জিয়াদের বড় ভাই জাহেদ হোসেন।

ওসি জানান, ডিশ ব্যবসার চাঁদাবাজিকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসীরা জিয়াদকে হত্যা করেছিল। এই মামলায় ১৯ সেপ্টেম্বর আরমান নামে এক আসামিকে গ্রেফতার করেছে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। এদিকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় রাসেলকে।

ওসির ভাষ্য, হত্যাকান্ডের পর রাসেল ঢাকায় গিয়ে আত্মগোপন করে। ফটিকছড়ি থেকে গ্রেফতার আরমানের স্বীকারোক্তি মতে  শুক্রবার ঢাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদে সে স্বীকার করে তার কাছে অবৈধ অস্ত্র আছে। এরপর রাতে আমরা তাঁকে নিয়ে দর্জিপাড়ার পাশে জেলেপাড়ায় খোলা মাঠে অস্ত্র উদ্ধারের জন্য উপস্থিত হলে রাসেলের সহযোগিরা গুলি ছুঁড়লে দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলির এক পর্যায়ে রাসেল গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়।

এসএস

 

চট্টগ্রাম: আরও পড়ুন

আরও