ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা

ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি ৫:৫৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২২, ২০১৯

ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেয়েছে শিরিনা খাতুন (১৪) নামে এক মাদ্রাসাছাত্রী।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পঙ্কজ বড়ুয়ার নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত সদর উপজেলার সাদেকপুর ইউনিয়নের বেপারীপাড়া গ্রামে উপস্থিত হয়ে বাল্যবিয়ে বন্ধ করে দেয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার সাদেকপুর ইউনিয়নের বেপারীপাড়ার দিলদার হোসেনের মেয়ে ও স্থানীয় একটি আলিয়া মাদ্রাসার নবম শ্রেণির ছাত্রী শিরিনা খাতুনের সঙ্গে একই এলাকার আবদুল আওয়ালের ছেলে দ্বীন ইসলামের বিয়ে বৃহস্পতিবার হওয়ার কথা ছিল।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পঙ্কজ বড়ুয়া উপস্থিত হয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেন।

এ সময় বর দ্বীন ইসলামকে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও মেয়ের বাবা দিলদার হোসেন এবং বরের বাবা আবদুল আওয়ালকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেন।

একই সঙ্গে মেয়ে প্রাপ্ত বয়স্কা না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেবেন না বলে মুচলেকা আদায় করা হয়।

এ বিষয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক পঙ্কজ বড়ুয়া জানান, বাল্যবিয়ের বিরুদ্ধে তাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এআর/আইএম

 

চট্টগ্রাম: আরও পড়ুন

আরও