ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মহাসড়কের পাশে ময়লার ভাগাড় (ভিডিও)

ঢাকা, ২৪ আগস্ট, ২০১৯ | 2 0 1

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মহাসড়কের পাশে ময়লার ভাগাড় (ভিডিও)

আবুল হাসনাত মো. রাফি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৪:০৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৬, ২০১৯

ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের পৌর এলাকার পৈরতলার কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের বাইপাস সেতুর পাশে ময়লা-আবর্জনা ফেলে ভাগাড় তৈরী করেছে পৌরসভা। এমনকি ময়লা-আবর্জনা মহাসড়কের উপরেই ফেলা হচ্ছে। ফলে এই সড়ক দিয়ে যাতায়াতকারী স্থানীয় শিক্ষার্থী ও পথচারীরা রয়েছেন মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে।

পৌর এলাকার প্রায় ২৬ হাজার আবাসিক ও শিল্প আবাসিকের আবর্জনা ফেলার নিজস্ব ডাম্পিং পয়েন্ট থাকলেও দীর্ঘদিন ধরেই এসব বর্জ্য ফেলা হচ্ছে। এসব ময়লা-আবর্জনা ফুটপাত, বাসাবাড়ি পেরিয়ে এখন মহাসড়কের পাশে।

তবে পৌর কর্তৃপক্ষ বলছে, পৌরসভার ছয়বাড়িয়ায় তিন একর জায়গায় ময়লা বর্জ্য শোধানাগারের কাজ শুরু হলেই এই দুর্ভোগ আর থাকবে না।

এলাকাবাসী ও পৌরসভা সূত্রে জানা যায়, পৌরসভার গৌকর্ণ এলাকার ছয়বাড়িয়া নামক স্থানে তিন একর জমির উপর নিজস্ব ডাম্পিং পয়েন্ট রয়েছে। এ ডাম্পিং পয়েন্টের পাশেই ময়লা-বর্জ্য ব্যবস্থাপনা শোধনাগার করা হবে। এছাড়া পৌরসভার নিজস্ব ডাম্পিং পয়েন্ট থাকার পরও পৌর কর্তৃপক্ষ কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের পাশে ময়লার ভাগাড় হিসেবে ব্যবহার করছে।

পৌরসভা প্রতি মাসে ৯ হাজার বাসাবাড়ি থেকে ১৫০ টাকা করে নিয়ে ময়লার বর্জ্য ভ্যান দিয়ে সংগ্রহ করে মহাসড়কের পৈরতলা এ পয়েন্টে স্তুপ করে। পরে এসব আবর্জনা পৌরসভার গৌকর্ণ এলাকায় নিয়ে ফেলা হয়।

এ বিষয়ে পৌরসভার বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মোস্তাফিজ রহমান বলেন, কর্তৃপক্ষের নির্দেশেই মহাসড়কের পাশে ময়লা রাখা হচ্ছে। এ ব্যাপারে মেয়রের সঙ্গে আলোচনা করার পরামর্শ দেন তিনি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পৌর মেয়র মিসেস নায়ার কবির সাংবাদিকদের বলেন, এখানে রাখা ছাড়া আর কোনো ব্যবস্থা আপাতত আমাদের কাছে নাই। এখানে অল্প সময়ের জন্য রাখা হয়। পরে ট্রাকে করে নিয়ে অন্য জায়গায় ফেলা হয়।

তিনি আরো বলেন, পৌরসভার ছয়বাড়িয়ায় তিন একর জায়গায় ময়লা বর্জ্য শোধানাগারের কাজ শুরু হলেই এই দুর্ভোগ থাকবে না।

এএসটি

 

চট্টগ্রাম: আরও পড়ুন

আরও