ফেনীতে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙে ১৭ গ্রাম প্লাবিত

ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ | ৪ কার্তিক ১৪২৬

ফেনীতে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙে ১৭ গ্রাম প্লাবিত

ফেনী প্রতিনিধি ৯:৪৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ১০, ২০১৯

ফেনীতে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙে ১৭ গ্রাম প্লাবিত

গত কয়েক দিনের টানা বর্ষণ ও ভারত থেকে আসা পাহাড়ি উজানের পানির ঢলে ফেনীতে মুহুরী-কহুয়া নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ফুলগাজী ও পরশুরাম অংশে ১২ স্থানে ভাঙন দেখা দিয়েছে। ফলে প্লাবিত হয়েছে প্রায় ১৭টি গ্রাম। পানিবন্দি হয়েছেন অর্ধলক্ষাধিক মানুষ।

বুধবার বন্যা কবলিত গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, সেখানকার বাড়িঘর, বীজতলা, শব্জী ক্ষেত, মাছের ঘের, পুকুরের মাছ বন্যার পানিতে ভেসে গেছে। বসতঘর, রানাঘরে পানি ওঠার কারণে মানুষজনকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

পরশুরাম উপজেলা

মুহুরী নদীর পরশুরামের অংশে মঙ্গলবার রাতে ৫টি স্থানে ভাঙন দেখা দিয়েছে। ভাঙন স্থানগুলো হলো:  চিথলিয়া ইউনিয়নের উত্তর শালধর গ্রামের মহসিন মেম্বার বাড়ি সংলগ্ন, দুর্গাপুর গ্রামের কালাম মেম্বারের বাড়ি সংলগ্ন স্থান, পৌর এলাকার বেড়াবাড়ীয়া শাহপাড়া গ্রামে সংলগ্ন স্থান, উত্তর ধনিকুন্ডা বদু মিয়ার বাড়ি সংলগ্ন, নোয়াপুর আলত মিয়ার বাড়ি সংলগ্ন স্থানে।

এছাড়াও বেড়িবাঁধের ভাঙনের কারণে উত্তর ধনিকুন্ডা, চিথলিয়া, শালধর, রাজষপুর, দুর্গাপুর, নোয়াপুর, রামপুর, বেড়াবাড়ীয়া,অলকাসহ ৯টি গ্রাম বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়েছে।

ফুলগাজী উপজেলা

মঙ্গলবার দিনগত রাত ৮টা থেকে ৯টা দিকে ফুলগাজি উপজেলার মুহুরী নদীর বিভিন্ন স্থানে ৭টি ভাঙনে বেশ কয়েকটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার জয়পুরের ঘনিয়া মোড়ায় তিনটি স্থানে, উত্তর শ্রীপুর গ্রামের পূর্বপাড়া, সাহাপাড়া দুটি স্থানে, বক্সমাহমুদ কাপ্তান বাজার এলাকায় ২টি স্থানে ভাঙন দেখা দেয়।

এতে উপজেলার অন্তত ৮টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। গ্রামগুলো হলো উত্তর শ্রীপুর, দক্ষিণ শ্রীপুর, নীলক্ষি, কিসমত ঘনিয়া মোড়া,পশ্চিম ঘনিয়া মোড়া, জয়পুর, শাহাপাড়া, বৈরাগপুর গ্রাম।

এইচআর

 

চট্টগ্রাম: আরও পড়ুন

আরও