ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হত্যা মামলায় ৩ বন্ধুর যাবজ্জীবন, স্ত্রী খালাস

ঢাকা, ১৭ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হত্যা মামলায় ৩ বন্ধুর যাবজ্জীবন, স্ত্রী খালাস

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি  ৩:৫৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ১০, ২০১৯

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হত্যা মামলায় ৩ বন্ধুর যাবজ্জীবন, স্ত্রী খালাস

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে মাদক ব্যবসা ও পরকীয়ার ঘটনায় রিপন মিয়া হত্যা মামলায় তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বুধবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ শফিউল আজম এ এই দণ্ডাদেশ ঘোষণা করেন। এ মামলায় রিপন মিয়ার স্ত্রী আমেনা বেগমকে (৩৫) বেকসুর খালাস দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, বাঞ্ছারামপুর উপজেলার ভেলানগর গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার ছেলে শিপন মিয়া (৪৫), বাতেন মিয়ার ছেলে মো. কবির (৩৪) ও কাজী মোস্তফার ছেলে মো. হাবিব (২৩)।

রায় ঘোষণার সময় সকল আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার রূপসদী গ্রামের রিপন মিয়ার সাথে শিপন মিয়া, মো. কবির ও কাজী মোস্তফা মো. হাবিব বন্ধুত্বের সম্পর্ক ছিল। রিপন মিয়ার সাথে বন্ধুত্বের আড়ালে তার স্ত্রীর আমেনা বেগমের সঙ্গে শিপন মিয়ার পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। তারা সবাই মাদক ব্যবসায় জড়িত ছিল। এ মাদক ব্যবসা নিয়ে তাদের মধ্যে দ্বন্দ্বও ছিল। এরই জেরে ২০১৬ সালের ২ জানুয়ারি থেকে ১০ জানুয়ারির কোনো এক সময় আসামিরা রিপনকে হত্যা করে তার শ্বশুরবাড়ি ভেলানগর গ্রামের একটি জমির বালিতে পুঁতে রাখে। কয়েকদিন পর পুলিশ লাশের সন্ধান পায়।

এ ঘটনায় রিপন মিয়ার ভাই বোরো মিয়া বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেন। প্রথমে মামলায় আমেনা বেগম ও শিপন মিয়াকে আসামি করা হয় পরে চার্টশিটে মো. কবির ও  মো. হাবিবকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। তাদের সবাইকে আটকের পর শিপন মিয়া, মো. কবির ও  মো. হাবিব আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেন।

মামলাটি তদন্ত করে বাঞ্ছরামপুর থানা পুলিশ আদালতে চার আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেছিলেন।

মামলার রায়ে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ও জেলা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এসএম ইউসুফ সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

এইচআর

 

চট্টগ্রাম: আরও পড়ুন

আরও