যতটুকু ছিল সেই অবস্থায় রয়েছে এ শহর: মেয়র নাছির

ঢাকা, ২২ আগস্ট, ২০১৯ | 2 0 1

যতটুকু ছিল সেই অবস্থায় রয়েছে এ শহর: মেয়র নাছির

চট্টগ্রাম ব্যুরো ১১:২১ অপরাহ্ণ, জুন ১২, ২০১৯

যতটুকু ছিল সেই অবস্থায় রয়েছে এ শহর: মেয়র নাছির

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ.জ.ম.নাছির উদ্দীন বলেছেন, এই শহরটা আমাদের। তাই আমাদের শহরকে আমাদেরকেই সাজিয়ে তুলতে হবে। এক্ষেত্রে আলাপ আলোচনার মধ্যে সীমাবদ্ধতা নয়, বাস্তবায়নের প্রয়োগটা নিশ্চিত করতে হবে এবং প্রকল্প বাস্তবায়নের পর তা দেখভালের সক্ষমতা ও থাকতে হবে। 

বুধবার দুপুরে জাইকা সাহায্যপুষ্ট সিটি গভর্নেন্স প্রকল্পের অধীনে সিভিল সোসাইটি কো-অর্ডিনেশন কমিটির ১৬তম সভায় সভাপতির বক্তব্যে একথা বলেন।

তিনি বলেন, মানুষের সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে সকল ক্ষেত্রে নগরবাসীর প্রত্যাশাও অনেকগুণ বেড়েছে। এতে শহরে আধুনিক মানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যেমন বেড়েছে, তেমনি বেড়েছে অত্যাধুনিক ক্লিনিক, আবাসন ব্যবস্থা। সবকিছুর পরিবর্তন হলে ও শহরের পরিধি বাড়েনি। আগে যতটুকু ছিল এখনো সেই অবস্থায় রয়েছে এ শহর। 

সিটি মেয়র বলেন, নগরীর সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠানসমূহের মধ্যে নিবিড় সমন্বয় ও পারস্পারিক সহযোগিতা ব্যতিত এই নগরী নিরাপদ ও বাসযোগ্য শহর হিসেবে গড়ে তোলা সম্ভব নয়। চসিকের সকল উন্নয়ন কর্মকাণ্ড সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের সাথে সমন্বয়পূর্বক পরিকল্পিত উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ এবং চলমান প্রকল্প দ্রুত সম্পাদনের ব্যাপারে তিনি গুরুত্বারোপ করেন।

যানজট প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, যানজটে নগরবাসীর ত্রাহি ত্রাহি অবস্থা। নগরে ট্রাফিক ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। যেখানে যাই সেখানে যানজট আর যানজট। এই অবস্থায় নগরবাসী যাবে কোথায়?

এই অবস্থার উত্তোরণ ঘটাতে উদ্যোগী হবার জন্য সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানসমূহের নগর পরিকল্পনাবিদ ও বিশেষজ্ঞদের প্রতি আহবান জানান মেয়র।

তিনি বলেন, শহরে ভিন্ন ভিন্ন প্রকৃতির গাড়ি চলাচল করে। আর তাদের যাত্রী সাধারণ যেসব স্থানে নামবে, সেইসব স্থানে কোনো পার্কিং ব্যবস্থা নেই। এটাতো আধুনিক নগরের পর্যায়ে পড়ে না। অথচ আমরা এই চট্টগ্রামকে তিলোত্তমা নগরী এবং প্রচ্যের রাণী হিসেবে অভিষিক্ত করেছি, এখনো করছি।

নগরীর যানবাহন সেক্টরে শৃংখলা আনায়নের কথা উল্লেখ করে মেয়র বলেন, চট্টগ্রাম শহরে কত ধরনের যানবাহন চলাচল করে তার আকার-আকৃতি-প্রকৃতি নির্ণয় করতে হবে। সেই সব যানবাহনের পার্কিং ব্যবস্থার জন্য সেবা সংস্থাদের মধ্যে সমন্বয় সাধন অতীব জরুরি।

এক্ষেত্রে চসিক, সিডিএ এবং ট্রাফিক বিভাগ ব্যতিত নগরীতে যানবাহনের শৃংখলা আনায়ন অসম্ভব বলে মন্তব্য করেন তিনি। 

সিটি মেয়র বলেন, ফুটপাতে পথযাত্রীদের চলাচল নিরাপদ ও নিবিঘ্ন করতে হবে। তাই বিকেল ৫টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত হকাররা নগরীর ফুটপাতে বসবেন এবং পথচারীদের নিবিঘ্নে চলাচলের জন্য ফুটপাতের একটি অংশ উন্মুক্ত রাখা হবে।

প্রয়োজনে বন্ধের দিনে হলিডে মার্কেট করার বিষয়ে সংশ্লিষ্ঠদেরকে ধারণা দেয়ার আহবান জানান মেয়র।

সভায় চসিক প্যানেল মেয়র, কাউন্সিলর, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা, সচিব মোহাম্মদ আবু শাহেদ চৌধুরী, প্রধান প্রকৌশলী লে.কর্ণেল মহিউদ্দিন আহমদসহ সিভিল সোসাইটি কো-অডিনেশন ও নগর উন্নয়ন কমিটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এআরই

 

চট্টগ্রাম: আরও পড়ুন

আরও