সোনাগাজীতে গৃহবধূ ধর্ষণের দায় স্বীকার ধর্ষকের

ঢাকা, ১৮ আগস্ট, ২০১৯ | 2 0 1

সোনাগাজীতে গৃহবধূ ধর্ষণের দায় স্বীকার ধর্ষকের

ফেনী প্রতিনিধি ১০:০৬ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১৯, ২০১৯

সোনাগাজীতে গৃহবধূ ধর্ষণের দায় স্বীকার ধর্ষকের

ফেনীর সোনাগাজীর আদর্শগ্রাম এলাকায় দুই সন্তানের জননীকে গণধর্ষণের ঘটনায় আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছে নুর আলম নামের এক অভিযুক্ত।

একই ঘটনায় মোশাররফ নামের আরেকজনকে গতকাল বৃহস্পতিবার আটক করেছে পুলিশ।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল দাস জানায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে জিনিয়র জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জাকির হোসেনর আদালতে আসামি নুর আলম অপরাধের দায় স্বীকার করে ১৬৪ দারায় জবানবন্দি দিয়েছে।

এর আগে এ ঘটনায় বুধবার (১৭ এপ্রিল) দুপুরে নুর আলম (৩৫) নামে বখাটে ওই যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) উপজেলার চর দরবেশ ইউনিয়নের আদর্শগ্রামসহ দক্ষিণ চর দরবেশ এলাকার এক বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় বুধবার (১৭ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ওই গৃহবধূ নিজে বাদী হয়ে নুর আলম (৩৫), মো. আপেল ও মোশারফ হোসেনসহ তিনজনকে আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন।

পুলিশ, স্থানীয় লোকজন ও পরিবার সূত্র জানায়, ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূ আদর্শগ্রাম এলাকার এক প্রবাসীর স্ত্রী ও দুই সন্তানের জননী। দীর্ঘদিন যাবত একই এলাকার নুর আলম, মো. আপেল ও মোশারফ হোসেন নামে তিন যুবক তাকে বিভিন্নভাবে অনৈতিক প্রস্তাব দিয়ে আসছিল।

প্রস্তাবে রাজি না হলে তাকে অপহরণ করে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করে মেরে ফেলার হুমকি দেয় বখাটেরা। বিষয় ওই গৃহবধূ তার পরিবারের সদস্যদেরকে জানায়। তারা বিষয়টি সম্পর্কে বখাটেদের পরিবারকে জানায়। এ নিয়ে স্থানীয়ভাবে সালিশী বৈঠকও হয়েছিল।

গত মঙ্গলবার রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিয়ে ওই গৃহবধূ ঘর থেকে বের হলে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা তিনজন পেছন দিক থেকে কাপড় দিয়ে মুখ চেপে ধরে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে বাড়ির পাশের নিয়ে গণধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। এতে গৃহবধূ অচেতন হয়ে বাড়ির উঠানে পড়ে থাকে।

পরে পরিবারের লোকজন ঘরের দরজা খোলা দেখে ঘর থেকে বের হয়ে ওই গৃহবধূকে উঠানে পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার করে। এসময় বাড়ির লোকজন তাকে ঘরে নিয়ে গ্রাম্য চিকিৎসক দিয়ে চিকিৎসা করায়। পরে জ্ঞান ফিরে এলে ধর্ষণের বিষয়টি পরিবারের সদস্যদের জানান।

খবর পেয়ে আদর্শগ্রাম কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত একজনকে গ্রেফতার  করে।

এইচআর

 

চট্টগ্রাম: আরও পড়ুন

আরও