প্রতিবন্ধী ও কিশোরীসহ ৩১ সাঁতারুর বাংলা চ্যানেল পাড়ি

ঢাকা, ১৭ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

প্রতিবন্ধী ও কিশোরীসহ ৩১ সাঁতারুর বাংলা চ্যানেল পাড়ি

জসিম মাহমুদ, টেকনাফ ১০:৪২ অপরাহ্ণ, মার্চ ২১, ২০১৯

প্রতিবন্ধী ও কিশোরীসহ ৩১ সাঁতারুর বাংলা চ্যানেল পাড়ি

বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে গৌরব অর্জন করলেন ২৬ বছর বয়সী বগুড়ার ছেলে মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন। সবচেয়ে কম সময়ে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে ইতিহাসের পাতায় নাম লিখিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে বাংলা চ্যানেলে সাঁতার শুরু করেন ৩৪ জন সাঁতারু।

তার মধ্যে ১২টা ৩৫ মিনিটে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে দ্বীপে প্রথম পৌঁছেন সাজ্জাদ। ২ ঘণ্টা ৫৫ মিনিট ৫১ সেকেন্ডে টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপের জিরো পয়েন্ট থেকে সাঁতরে ১৬ দশমিক ১ কিলোমিটার সমুদ্রপথ (বাংলা চ্যানেল) পাড়ি দিয়ে সেন্টমার্টিনে পৌঁছেন তিনি।

দ্বিতীয় হয়েছেন সাজ্জাদ মোহাম্মদ নয়ন ৩ ঘণ্টা ২৮ মিনিটে। তারা দুজই বগুড়া সরকারি কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র। এছাড়া ৩ ঘণ্টা ৪৪ মিনিটে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে তৃতীয় হয়েছেন সাইফুল ইসলাম রাসেল।

একজন প্রতিবন্ধী ও দুইজন কিশোরীসহ ৩৪ জন সাঁতারু এ বাংলা চ্যানেলটি পাড়ি দিলেন। এরমধ্যে ২৯ জন সাতারু বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিতে পেরেছেন।

আরো যারা সফলভাবে পাড়ি দিলেন তারা হলো মো. মনিরুজ্জামান ৩ ঘণ্টা ৫৭ সেকেন্ড, মিতু আক্তার ৪ ঘণ্টা ৫ মিনিট, মোহাম্মদ শামসুজ্জামান আরাফাত ৪ ঘণ্টা ৮ মিনিট, হেমায়েত উল্লাহ নূর ৪ ঘণ্টা ১১ মিনিট, মো. রফিকুল ইসলাম ৪ ঘণ্টা ১৬ মিনিট, শ্রী শংকর চন্দ্র বর্মন ৪ ঘণ্টা ১৮ মিনিট, মো. মাজেদ মিয়া ৪ ঘণ্টা ২৬ মিনিট, আব্দুল্লাহ আল রোমান ৪ ঘণ্টা ২৯ মিনিট, ফেরদৌস আলম ৪ ঘণ্টা ৩০ মিনিট, মাহাদি হাসান ৪ ঘণ্টা ৩৩ মিনিট, মো. মুসা হারুন ৪ ঘণ্টা ৪৭ মিনিট, শেখ মাহবুব উর রহমান ৪ ঘণ্টা ৪৯ মিনিট, মোসাদ্দেক আহমেদ তারিক ৪ ঘণ্টা ৫০ মিনিট, মো. নাহিদ হাসান ৪ ঘণ্টা ৫১ মিনিট, জামশেদুল আলম ৪ ঘণ্টা ৫৬ মিনিট, সোহাগী আক্তার ৫ ঘণ্টা ৩ মিনিট, মিজানুর রহমান ৫ ঘণ্টা ১৩ মিনিট, আবু তাহের ৫ ঘণ্টা ১৯ মিনিট, দিদার ৫ ঘণ্টা ২৫ মিনিট, মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন ৫ ঘণ্টা ৩১ মিনিট, মো. আল শাদ সরকার ৫ ঘণ্টা ৩৮ মিনিট, মো. শোয়াইব ৫ ঘণ্টা ৪০ মিনিট, লিপটন সরকার ৫ ঘণ্টা ৪০ মিনিট, মো. আলমগীর ৫ ঘণ্টা ৪৩ মিনিট, মুনতাসির সামি ৬ ঘণ্টা ১০ মিনিট, সাবলীল বাশার সুজা ৬ ঘণ্টা ১১ মিনিট, হাসিবুল হাসান সবুজ ৬ ঘণ্টা ৩৪ মিনিট, ইয়াকুব আলী ৬ ঘণ্টা ৪৬ মিনিট।

এ দলে দুজন নারী ছিলেন। তারা হলেন মিতু আকতার ও সোহাগী আকতার। মিতু আকতার প্রথম বাংলাদেশি নারী যিনি এর আগে বাংলা চ্যানেল সাঁতরে পাড়ি দিয়েছেন। বাংলা চ্যানেল সাঁতার প্রতিযোগিতার এ দলে রয়েছেন গত ১৩ বার বাংলা চ্যানেল পাড়ি দেয়া সাঁতারু লিপটন সরকার। এছাড়া মোহাম্মদ শোয়াইব নামে ৬৯ বছরের এক প্রতিবন্ধী বৃদ্ধ এবং সাইফুল ইসলাম রাসেল নামে ডাকসু নবনির্বাচিত এক সদস্যও রয়েছেন।

সাজ্জাদ বলেন, আমার টার্গেট ছিল যেকোনো মূল্যে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে জয়ের স্বাদ নিতে। আল্লাহ আমার সেই আশা পূরণ করেছেন। আমি আরো এগিয়ে যেতে চাই। এজন্য সরকার ও বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের সহযোগিতা কামনা করছি।

সেন্ট মার্টিনের স্থানীয় সংবাদিক নুর আহমদ বলেন, সাজ্জাদ নামে একজন বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে প্রথম দ্বীপে পৌঁছেছে। এ সময় দ্বীপের বাসিন্দারা তাদের ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানান।

এইচআর

 

চট্টগ্রাম: আরও পড়ুন

আরও