চসিকের বিদ্যালয়ে বিনা বেতনে পড়ছে ৭ হাজার শিক্ষার্থী

ঢাকা, ২০ জুন, ২০১৯ | 2 0 1

চসিকের বিদ্যালয়ে বিনা বেতনে পড়ছে ৭ হাজার শিক্ষার্থী

চট্টগ্রাম ব্যুরো ৯:২৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৯

চসিকের বিদ্যালয়ে বিনা বেতনে পড়ছে ৭ হাজার শিক্ষার্থী

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, ঝরে পড়া শিক্ষার্থী রোধে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন তাঁর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রতি বছর প্রায় সাত হাজার শিক্ষার্থীকে বিনা বেতনে পড়ার সুযোগ দিচ্ছে।

চসিক পরিচালিত পাথরঘাটা সিটি কর্পোরেশন মহাবিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের ২০২১ ও ২০৪১ রূপকল্প বাস্তবায়নে শিক্ষার্থীদের সৃজনশীল, সৃষ্টিশীল, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমৃদ্ধ বিশ্বমানের নাগরিক গড়ে তোলাই এর উদ্দেশ্য।

মেয়র বলেন, নগরে সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আছে মাত্র ৯টি। এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়ম বহির্ভূত কোনো শিক্ষার্থীর ভর্তি হওয়ার সুযোগ নেই। স্বভাবত ভর্তি হতে না পারলে একজন শিক্ষার্থীর শিক্ষা জীবন থেকে ঝরে পড়ার সম্মুখ সম্ভাবনা থাকে। সে ক্ষেত্রে শিক্ষার আলোকবর্তিকা নিয়ে এগিয়ে এসেছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন।
বর্তমানে এই প্রতিষ্ঠানটি প্রায় ৯০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছে। এসব প্রতিষ্ঠানে প্রায় ৬০ হাজার শিক্ষার্থী লেখাপড়া সুযোগ পাচ্ছে- যোগ করেন মেয়র।

আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, শিক্ষার্থী ঝরে পড়া রোধে এখন প্রয়োজন শিক্ষক, অভিভাবক ও স্কুল পরিচালনা পর্ষদের আন্তরিকতা।

শিক্ষকগণ যদি যথাসময়ে বিদ্যালয়ে উপস্থিত হন, পাঠ পরিকল্পনা ও উপকরণ নিয়ে শ্রেণিকক্ষে যান এবং আকর্ষণীয়ভাবে পাঠদান করেন তাহলে শিক্ষার্থী ঝরে পড়া অনেকাংশে কমে যাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সোমবার চসিক মেয়র ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে পাথরঘাটা সিটি কর্পোরেশন মহাবিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধন করেন। শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের অর্থায়নে পাথরঘাটা সিটি কর্পোরেশন মহাবিদ্যালয়ের এ ভবন নির্মিত হয়।

৫ তলা বিশিষ্ট ৩৩শ বর্গফুট বিশিষ্ট এই একাডেমিক ভবন নির্মাণে ব্যয় হয় ৩ কোটি ২০ লাখ টাকা। এতে সমৃদ্ধ আইসিটি সুবিধাসহ ক্লাসরুম স্বতন্ত্র ফিজিক্স, কেমিস্ট্রি, বায়োলজি, কম্পিউটার ল্যাব, লাইব্রেরি, মাল্টিপারপাস হলরুম, গালর্স কমন রুম, মেডিকেল রুম, মিটিং রুম, শিক্ষক রুম, টিচার্স কমন রুম, এডমিশন ও একাউন্ট সেকশন, ক্যান্টিন ও বাথরুম ব্লক রয়েছে।

এইচআর

 

চট্টগ্রাম: আরও পড়ুন

আরও