ইথিওপিয়া থেকে গ্রিন-টি ঘোষণায় আনা এলো নতুন মাদক ‘খাট’

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

ইথিওপিয়া থেকে গ্রিন-টি ঘোষণায় আনা এলো নতুন মাদক ‘খাট’

চট্টগ্রাম ব্যুরো ৯:৩৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৮

ইথিওপিয়া থেকে গ্রিন-টি ঘোষণায় আনা এলো নতুন মাদক ‘খাট’

গ্রিন-টি ঘোষণা দিয়ে ইথিওপিয়া থেকে আনা ‘খাট’ নামের নতুন ধরনের মাদকের দুইটি চালান আটক করেছে চট্টগ্রাম কাস্টমস।

আটককৃত ওই মাদকের পরিমান ২০৮ কেজি। যার পুরোটাই আনা হয়েছে মিথ্যা ঘোষণা দিয়ে। বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউজে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এমন তথ্য জানান কাস্টমস কমিশনার ড. এ কে এম নুরুজ্জামান।

এর আগে গত ৩০ আগস্ট এই মাদকের চালান দুটি আটক করা হয়। এরপর পরীক্ষা নিরীক্ষায় নিশ্চিত হওয়ার পর বৃহস্পতিবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে গণমাধ্যমকে জানানো হয়।

কাস্টমস কমিশনার একেএম নুরুজ্জামান বলেন, জিয়াদ মোহাম্মদ ইউসুফ ও জেমিরা ট্রেডিং নামের দুটি প্রতিষ্ঠান গ্রিন-টি ঘোষণা দিয়ে চালান দুটি ইথিওপিয়া থেকে চট্টগ্রামে পাঠিয়েছে। এই চালান দুটির প্রাপকের ঠিকানায় উল্লেখ আছে চট্টগ্রামের হালিশহরের ইফতেখার হোসেন ও ফেনীর আরিফ এন্টারপ্রাইজ। তবে চালান দুটি আসার পর ওই প্রাপকদেরকে সন্ধান করা হয়েছে। কিন্তু ঠিকানায় উল্লেখিত প্রাপকদের কাউকে পাওয়া যায়নি।

এ কাস্টমস কমিশনার বলেন, খাটের চালান দুটি ইথিওপিয়া থেকে ঢাকার ডাব বিভাগে আসে। সেখান থেকে গত ৩০ আগস্ট চট্টগ্রামে এসে পৌঁছে। দুইটি আলাদা পার্সেলে মোট ১৩টি কার্টনে ২০৮ কেজি খাট বাংলাদেশে পাঠানো হযেছে।

ইথিওপিয়ার জিয়াদ মোহাম্মদ একটি চালান পাঠান মো. ইফতেখার হোসেন, বাড়ি নাম্বার-২৩, রোড-১, লেইন-৪, নিউ এ-ব্লক হালিশহর ঠিকানায়। এই চালানে মোট ১০ টি কার্টনে মোট ১৬০ কেজি খাট রয়েছে।

ইথিওপিয়ার জেমিরা ট্রেডিং (পিএলসি) থেকে পাঠানো অপর চালানে প্রাপক আরিফ এন্টারপ্রাইজ। ঠিকানায় দেয়া আছে- প্রযত্নে আরিফ ভূঁইয়া, শান্তিধারা আবাসিক এলাকা, শান্তি কোম্পানি, ফেনী সদর, ফেনী। তার এই চালানে তিনটি কার্টনে ৪৮ কেজি খাট রয়েছে।

কাস্টমস কমিশনার আরো বলেন, ঘোষণা দেয়া হয়েছিলো এসব কার্টনে গ্রিণ-টি বা সবুজ চা রয়েছে। পরীক্ষা করে দেখা যায় এগুলো গ্রিণ-টি নয়, বরং ভয়ানক মাদক খাট। ক্যাথেলিন গ্রুপের একটি উদ্ভিজ পদার্থ বলে তিনি জানান। যা ইয়াবা হেরোইনের চেয়েও ভয়ঙ্কর। যা জীবন ধ্বংস করে দেয়ার জন্য যথেষ্ট বলে তিনি জানান।

জেএইচ/আরজি