বাথরুমে কলেজছাত্রী, ঘরে প্রবাসী, পুকুরে নববধূ ও যুবকের লাশ!

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৬ আশ্বিন ১৪২৫

বাথরুমে কলেজছাত্রী, ঘরে প্রবাসী, পুকুরে নববধূ ও যুবকের লাশ!

চট্টগ্রাম ব্যুরো ১:৫২ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২০, ২০১৮

বাথরুমে কলেজছাত্রী, ঘরে প্রবাসী, পুকুরে নববধূ ও যুবকের লাশ!

চট্টগ্রামে হঠাৎ করে রহস্যজনক মৃত্যু বেড়েই চলেছে। গত দুইদিনে মারা গেছেন চারজন। এর মধ্যে জেলার লোহাগাড়ায় নববধূ, বাঁশখালীতে কলেজছাত্রী, নগরের চান্দগাঁও আবাসিক এলাকায় শ্বশুরবাড়িতে কাতার প্রবাসী মেয়েজামাতা আর নগরের জুবলী রোডের রাণী পুকুরে অজ্ঞাত এক যুবকের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এসব মৃত্যুর প্রকৃত কারণ অজানাই রয়ে গেছে পুলিশের কাছে।

তবে এসব মৃত্যুর জন্য সচেতন মহল পারিবারিক কলহ, সামাজিক বিশৃঙ্খলা ও একরোখা মনোভাবকে দুষছেন।

গত ১৭ আগস্ট শুক্রবার নগরের উত্তর চাঁন্দগাও বাহির সিগন্যাল এলাকার বক্স চৌধুরীর বাড়িতে মৃত্যু হয় কাতার প্রবাসী মেয়ে জামাতা মো. হাসান‘র (৩৮)। শ্বশুর বাড়ির পক্ষ হতে হাসান ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যার করেছে বলে দাবি করলেও নিহতের স্বজনদের দাবি তাকে হত্যা করা হয়েছে। এদিকে নিহত হাসানের মৃতদেহ ময়নাতদন্ত না করেই জেলার রাউজান উপজেলার নোয়াপাড়া ইউনিয়নের সাদারপাড়া গ্রামে নিয়ে দাফন করা হয়েছে। হাসান ওই গ্রামের মৃত নুর হোসেনের পুত্র এবং দুই পুত্র ও এক কন্যা সন্তানের জনক।

নিহত হাসানের স্ত্রী নাছিমা আক্তার জানান, ধীর্ঘদিন কাতারে ছিলেন হাসান। সেদেশে গাড়ি চালাতেন তিনি। গত ৮ জুলাই দেশে আসেন। এরমধ্যে গত বুধবার (১৫ আগস্ট) রাতে স্ত্রী ও সন্তানদের নিজ বাড়িতে রেখে শ্বশুরবাড়িতে যান হাসান এবং সেখানেই রাতযাপন করেন। পরেরদিন বৃহস্পতিবার স্ত্রী সন্তানরাও সেখানে যান। এরপর শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঘরের একটি কক্ষে প্লাস্টিকের দড়িতে হাসানের ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান পরিবারের লোকজন।

ওই সময় পরিবারের লোকজন উদ্ধার করে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত হাসানের শ্যালক মো. হোসেন  চৌধুরী বলেন, শুক্রবার সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখি দুলাভাই আমাদের ঘরের সামনের কক্ষে ফ্যানের হাতলের সঙ্গে রশি পেঁচানো অবস্থায় ঝুলছে।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে নগরের চাঁন্দগাও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল বাশার বলেন, এমন কোনো খবর আমাদের জানা নেই। তবে খোঁজ নিয়ে দেখছি।

রাউজান থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কেপায়াত উল্লাহ বলেন, ঘটনাটি জেনেছি। তবে ঘটনাস্থল যেহেতু চট্টগ্রাম মানগরের চান্দঁগাও সেজন্য বিষয়টি সেই থানা প্রশাসনই দেখার নিয়ম রয়েছে।

অপর ঘটনায় বাঁশখালী পৌরসভার আস্করিয়াপাড়া এলাকায়  আমেনা বেগম (১৮) নামের এক কলেজছাত্রীর মৃত্যুকে ঘিরে ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। গত তিন মাস আগে ওই কলেজছাত্রী আমেনা বেগমের সাথে একই এলাকার প্রবাসী মো. ওবায়দুর রহমানের বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পর স্বামীকে নিয়ে আমেনা মায়ের কাছেই থাকতেন।

শুক্রবার দিনগত রাত দু‘টার দিকে বাথরুমে যান আমেনা বেগম। তবে দীর্ঘক্ষণ পরও বাথরুম থেকে আমেনা বেগম না ফেরার কারণে বাথরুমে গিয়ে দেখা যায় অজ্ঞান হয়ে পড়ে আছেন।  সাথে সাথে তাকে উদ্ধার করে বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা করে তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ

রপর স্বজনরা লাশ নিয়ে যেতে চাইলে বাধা হয়ে দাঁড়ায় বাঁশখালী থানা পুলিশ। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার তৌহিদুল আনোয়ার বলেন, নিহতের গলায় ও হাতে আঘাতের চিহ্ন থাকায় আমরা থানাকে জানিয়েছি।

নিহতের মা নুরুন নাহার বলেন, রাতে আমেনা বাথরুমে যাওয়ার পর অনেকক্ষন পরও যখন দেখি সে আসছে না। ডাকাডাকি করার পরও কোনো সাড়াশব্দ পাওয়া যাচ্ছেনা। তখন বাথরুমের দরজা ভেঙ্গে অজ্ঞান অবস্থায় পাই।

এ বিষয়ে বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সালাউদ্দীন হীরা বলেন, ডাক্তারের ভাষ্যমতে মৃত্যুটা অস্বাভাবিক। তাই লাশের ময়নাতদন্তের পাশাপাশি থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

গত ১৭ আগস্ট শুক্রবার বিয়ের ১৫ দিনের মাথায় লোহাগাড়ায় পুকুর থেকে উদ্ধার করা হয়েছে জান্নাতুল ফেরদৌস (১৯) নামে এক নববধূর লাশ। দুপুরের দিকে উপজেলার পূর্ব কলাউজান মিয়াজী পাড়ায় শ্বশুরবাড়ির পুকুর থেকে তার মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়। নিহত নবববূ জন্নাতুল ফেরদৌসের সাথে গত ১৫ দিন আগে ওই এলাকার কুতুব উদ্দিনের বিয়ে হয়।

কলাউজান ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম.এ ওয়াহেদ নিহতের স্বজনদের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, গত ১৫ দিন পূর্বে জান্নাতুল ফেরদৌস ও বিদেশ ফেরত কুতুব উদ্দিনের বিয়ে হয়। শুক্রবার দুপুরের দিকে স্বামী-স্ত্রী দু’জনই পুকুরে যান। জুমার নামাজের জন্য স্বামী কুতুব উদ্দিন গোসল শেষে দ্রুত ঘরে চলে গেলেও স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস কাপড়-চোপড় ধোয়ার জন্য পুকুরঘাটে থেকে যান। এর কিছুক্ষন পরই জন্নাতুল ফেরদৌস পুকুরে ভাসতে দেখে শ্বশুরারয়ের লোকজন। পরে দ্রুত তাকে উদ্ধার করে উপজেলা সদরের একটি  বেসরকারী হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা  শেষে মৃত ঘোষণা করেন।

লোহাগাড় থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আহসান হাবিব জানান, পানিতে ডুকে নাকি অন্যভাবে মারা গেছে জানার জন্য লাশের ময়নাতদন্ত করা হয়েছে। রিপোর্ট পেলেই বিস্তারিত জানা যাবে। এই বিষয়ে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

সর্বশেষ ১৮ আগস্ট শনিবার দুপুরের দিকে চট্টগ্রাম মহানগরের কোতোয়ালি থানার জুবরী রোডের রাণী পুকুর থেকে অজ্ঞাত এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। স্থানীয়রা আনুমানিক ৪০ বছরের ওই যুবকের লাশ পানিতে ভাসতে দেখে দ্রুত উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা করে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (পরিদর্শক) জহিরুল হক ভুঁইয়া এই থকর নিশ্চিত করেন। সিএমপির কোতোয়ালী থানাকে বিষয়টি জানানো হয়েছে বলে তিনি জানান।  

জিএইচ/আরজি