প্রেমিকার মা-বাবাকে দায়ী করে স্টামফোর্ডের ছাত্রের আত্মহত্যা

ঢাকা, বুধবার, ২২ জানুয়ারি ২০২০ | ৯ মাঘ ১৪২৬

প্রেমিকার মা-বাবাকে দায়ী করে স্টামফোর্ডের ছাত্রের আত্মহত্যা

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১২:১১ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০৯, ২০১৯

প্রেমিকার মা-বাবাকে দায়ী করে স্টামফোর্ডের ছাত্রের আত্মহত্যা

প্রেমের সম্পর্ক মেনে না নিয়ে অপহরণ মামলা দিয়ে হয়রানি করায় প্রেমিকার মা-বাবাকে দায়ী করে আত্মহত্যা করেছে এক তরুণ।

রোববার রাতে পুরান ঢাকার ধোলাইখাল এলাকার একটি বাসায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন সায়েম হাসান শান্ত (২১) নামের ওই তরুণ। তিনি স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র।

সূত্রাপুর থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ আলী বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই তরুণের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

শান্তর বাবা রিপন বলেন, শান্তর সঙ্গে পুরান ঢাকার লক্ষ্মীবাজার এলাকার একটি মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। গত ২৬ নভেম্বর মেয়েটি আমার বাড়িতে চলে আসে। এরপর তার বাবাসহ স্বজনরা নিতে এলেও মেয়েটি যায়নি। তখন মেয়েটিকে মারধর করে চলে যায় তারা।

তিনি আরো বলেন, মেয়েটির বাবা ফিরে গিয়ে থানায় আমার ছেলের বিরুদ্ধে অপহরণের মামলা করেন। ওই মামলায় পুলিশ শান্তকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়। কিছুদিন জেল খাটার ফিরে গত শুক্রবার ছাড়া পায় শান্ত। এর আগেই আমাদের বাড়ি থেকে মেয়েটিকে নিয়ে যায় তার মা-বাবা।

রিপন বলেন, শান্ত ছাড়া পাওয়ার পর এলাকায় অনেকেই তাকে এ নিয়ে অপমানজনক কথা বলত। এগুলো সহ্য করতে না পেরে রোববার সন্ধ্যায় নিজের মৃত্যুর জন্য প্রেমিকার মা-বাবাকে দায়ী করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে নিজকক্ষে আত্মহত্যা করে আমার ছেলে। আত্মহত্যায় প্ররোচণা দেয়ায় মেয়েটির মা-বাবার বিচার চাই আমি।

পিএসএস/জেডএস

 

রাজধানী: আরও পড়ুন

আরও