আগুন নেভাতে সাহসী ভূমিকায় ১৬ জনকে সংবর্ধনা দিল হোটেল কস্তুরী

ঢাকা, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

আগুন নেভাতে সাহসী ভূমিকায় ১৬ জনকে সংবর্ধনা দিল হোটেল কস্তুরী

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ২:৪৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৫, ২০১৯

আগুন নেভাতে সাহসী ভূমিকায় ১৬ জনকে সংবর্ধনা দিল হোটেল কস্তুরী

রাজধানীর নয়াপল্টনের জিএ ভবনের নিচতলায় একটি মুদি দোকানে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় যেসব সাহসী ব্যক্তি এগিয়ে এসে আগুন দ্রুত নিভিয়ে বড় ধরনের অগ্নিকাণ্ড থেকে রক্ষা করেছিল তাদেরকে সংবর্ধনা দিয়েছে হোটেল কস্তুরী কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার হোটেলে এ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তাদেরকে ক্রেস্ট ও মেডেল উপহার দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে হোটেল কস্তুরী প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাওসার আহমেদ, পরিচালক খান মোহাম্মদ ইমতিয়াজ, ড. মেহেদী মাসুদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

হোটেল কস্তুরী প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাওসার আহমেদ বলেন, গত ২ নভেম্বর বিকেলে জিএ ভবনের নিচতলায় একটি মুদি দোকানে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। এ সময় হোটেল কস্তুরীসহ ভবনের অন্যান্য ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী ছাড়াও আশপাশের ডাব বিক্রেতাসহ অনেকেই এগিয়ে এসেছিলেন। তাদের তৎপরতার কারণে ও আল্লাহর অশেষ রহমতে ভবনটি বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছিল। এ কারণে এসব কর্মী আমাদের কাছে বীরের মতো। তাদেরকে সংবর্ধিত করতে পেরে আমরা নিজেরাও গর্ববোধ করছি।

অনুষ্ঠানে ১৬ জনকে সংবর্ধনা দেয়া হয়। এর মধ্যে হ্যাভেনস লাইটিংয়ের মো. ইউসুফ শিকদারকে বিশেষ সম্মাননা ক্রেস্ট দেয়া হয়। এছাড়া গ্লোরিয়ানার মো. সুমন গাজী ও আব্দুল করিম, ডাব বিক্রেতা সাগর, জিএ ভবনের কর্মী মো. শহীদ, শরীয়তপুর লাইটিংয়ের আল রাফিন, সিএনজি পাম্পের ইঞ্জিনিয়ার মো. ইমদাদুল, ইসরাত টাওয়ারের মাহবুব বিল্লা তানভীর ও সাদ্দাম হোসেন, হ্যাভেনস লাইটিংয়ের জিবরাত হোসেন ও ফারুক হোসেন, হোটেল কস্তুরীর ওয়াদুদ আহমেদ, হারুন অর রশীদ, আবুল কালাম, জয়দুল ইসলাম জয় ও তাবাসসুম মিজান বিনয়কে মেডেল উপহার দেয়া হয়।

এমএইচ

 

রাজধানী: আরও পড়ুন

আরও