আবরারের মৃত্যু: আনিসুল হককে জিজ্ঞাসাবাদ

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

আবরারের মৃত্যু: আনিসুল হককে জিজ্ঞাসাবাদ

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৪:৩৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৫, ২০১৯

আবরারের মৃত্যু: আনিসুল হককে জিজ্ঞাসাবাদ

দৈনিক প্রথম আলোর সাময়িকী ‘কিশোর আলো’র অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজের ছাত্র নাইমুল আবরার রাহাতের মৃত্যুর ঘটনায় সাময়িকীটির সম্পাদক আনিসুল হকসহ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার বিকালে মোহাম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জি জি বিশ্বাস পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, আবরারের মৃত্যুর ঘটনার প্রকৃত কারণ জানতে আনিসুল হকসহ অনেককেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তদন্তের প্রয়োজনে পরবর্তীতে দরকার হলে আবারও তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে।

এর আগে শনিবার রাতে নিহত আবরারের বাবা মজিবুর রহমান বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। মামলার তথ্যটি নিশ্চিত করে সেদিন মোহাম্মদপুর থানার ওসি পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ওই ঘটনায় মামলা হয়েছে। চিকিৎসকরা আমাদের জানিয়েছেন বিদ্যুৎস্পৃষ্টেই আবরার মারা গেছে। তবে এই ঘটনায় কারো গাফিলতি ছিল কিনা সেটিই আমরা এখন তদন্ত করে দেখবো।

গত শুক্রবার বিকালে রাজধানীর রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠে কিশোর আলোর বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয় নবম শ্রেণির ছাত্র নাইমুল আবরার রাহাত।

আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তবে অনুষ্ঠান চালিয়ে যেতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হওয়ার বিষয়টি দীর্ঘ সময় গোপন রাখার অভিযোগ উঠে। এ খবর ছড়িয়ে পড়ার পর বিক্ষোভ করেন স্কুলটির শিক্ষার্থীরা।

ঘটনা তদন্তে এরই মধ্যে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে কর্তৃপক্ষ।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী শামীম ফরহাদ বলেন, এটা একটা মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এর পেছনে কারো অবহেলা পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নাইমুল আবরার রাহাত রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল ও কলেজের নবম-গ শ্রেণির (দিবা) ছাত্র। তার রোল নম্বর ৮৭১২। এর আগে জেএসসি-২০১৮ তে এ+ পেয়ে উত্তীর্ণ হয় সে।

নিহত আবরার রাহাতের সহপাঠীদের অভিযোগ, কিশোর আলোর প্রোগ্রামে তার বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হওয়ার কথা কাউকে জানতে দেয়া হয়নি, এমনকি বাবা-মা বা কলেজ কর্তৃপক্ষ কাউকেও জানানো হয়নি।

বিক্ষোভকারীদের কয়েকজন জানান, বিকেল সাড়ে ৩টায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হওয়ার পরও এই খবর ধামাচাপা দিয়ে রাখা হয়, যাতে অনুষ্ঠানের কোনো ব্যাঘাত না ঘটে। বিকেল ৫টার পর তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। কিন্তু খবর ছড়িয়ে পড়ার ভয়ে কোনো সরকারি হাসপাতালে নেয়া হয়নি। তাকে নেয়া হয় মহাখালীর আয়েশা মেমোরিয়াল হাসপাতালে। কিন্তু ততক্ষণে আবরার রাহাত আর নেই বলে জানিয়ে দেন কর্তব্যরত চিকিৎসকরা।

পিএসএস/এসবি

 

রাজধানী: আরও পড়ুন

আরও