মিরপুরে সড়কে পোশাক শ্রমিকরা, কাঁচপুর রণক্ষেত্র

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

মিরপুরে সড়কে পোশাক শ্রমিকরা, কাঁচপুর রণক্ষেত্র

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৪:২৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯

মিরপুরে সড়কে পোশাক শ্রমিকরা, কাঁচপুর রণক্ষেত্র

বকেয়া বেতন-ভাতার দাবিতে রাজধানীর মিরপুরে মূল সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছে জিন্স নামে একটি গার্মেন্টেসের শ্রমিকরা। অন্যদিকে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের কাঁচপুরে মাতৃত্বকালীন ছুটি ও বেতন-ভাতা পরিশোধসহ চার দফা দাবিতে আন্দোলনরত সিনহা গার্মেন্টসের শ্রমিকরা পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়েছে।

রোববার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত শ্রমিকদের এই সড়ক অবরোধ ও পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

রোববার সকাল ৮টার দিকে মিরপুর সনি সিনেমা হলের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন জিন্স গার্মেন্টেসের শ্রমিকরা  সকাল ১০টার দিকে রাস্তা অবরোধ করে অবস্থান নেন তারা। অবরোধের কারণে চিড়িয়াখানা রোড, মিরপুর ১০ নম্বর থেকে মাজার রোড ও মিরপুর বাংলা কলেজ সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বিকাল তিনটা পর্যন্ত মিরপুরের সড়ক অবরুদ্ধ অবস্থায়ই ছিল।

শাহ আলী থানার ওসি মো. সালাউদ্দিন মিয়া জানান, এর আগেও এই গার্মেন্টেসের শ্রমিকরা দুই-তিনবার সড়ক অবরোধ করেছিল। তখন মালিক পক্ষের আশ্বাসের ভিত্তিতে তারা সড়ক ছেড়েও দিয়েছিল। কিন্তু তাদের বকেয়া বেতন-ভাতা এখনও বুঝে না পেয়ে আবারও সড়কে নেমেছে তারা। আমরা তাদের বিষয়ে বিজিএমইএ নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলেছি। পরিস্থিতি ঠিক করার চেষ্টা চলছে।

এদিকে রোববার সকাল নয়টার দিকে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করেন। এ সময় মহাসড়কে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

পরে বেলা ১১টায় মহাসড়ক থেকে শ্রমিকদের সরিয়ে দিতে সোনারগাঁও থানা পুলিশের সঙ্গে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশও অভিযানে নামে। এ সময় পুলিশ শ্রমিকদের জলকামান ও টিয়ারশেল ছুঁড়ে মারলে পুলিশের সঙ্গে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকদের সংঘর্ষ বেধে যায়। শ্রমিকরা এ সময় পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকেন।

শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে কাঁচপুর এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। পুলিশ আত্মরক্ষার্থে ফাঁকা গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। এতে পুলিশসহ কমপক্ষে ৩০ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়। সংঘর্ষের সময় মহাসড়কের উভয় পাশে তীব্র যানজট দেখা হয়। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েন ওইসব যানে থাকা যাত্রীরা।

শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মাতৃত্বকালীন ছুটি, ছুটিকালে ভাতা প্রদান, মাসিক বেতন ৮ তারিখের মধ্যে পরিশোধ ও ভাতা বৃদ্ধির দাবিতে কাঁচপুরের সিনহা গার্মেন্টের শ্রমিকরা শনিবার সকালে কারখানা এলাকায় বিক্ষোভ করেন। পরে তারা কারখানার প্রধান ফটকের বাইরে গিয়ে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করার চেষ্টা করেন। কিন্তু অবরোধে বাধ সাধেন পুলিশ। বাধার মুখে পড়ে শ্রমিকরা সড়ক ছেড়ে চলে যায়। পরে একদিনের জন্য কারখানা ছুটি ঘোষণা করেন কর্তৃপক্ষ। দাবি আদায়ে রোববার সকাল থেকে আবারো সড়কে নামেন শ্রমিকরা।

সোনারগাঁও থানার ওসি মো. মনিরুজ্জামান বলেন, শ্রমিক অসন্তোষের খবর পেয়ে শিল্প পুলিশ ও থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। এ সময় পুলিশ অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে কারখানার প্রধান ফটকের সামনে অবস্থান নেয় ও শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করলে শ্রমিকরা বেপরোয়া হয়ে ওঠেন। তারা পুলিশের ওপর ইটপাটকেল ছুঁড়তে থাকেন। পরে পুলিশও টিয়ারসেল এবং জলকামান নিক্ষেপ করে।

মালিকপক্ষের সঙ্গে কথা বলে আন্দোলন থামানোর চেষ্টা করছে বলেও জানান ওসি।

ওএস/পিএসএস

 

রাজধানী: আরও পড়ুন

আরও