কুকুরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় বন্দুক হাতে ধাওয়া!

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯ | ২ কার্তিক ১৪২৬

কুকুরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় বন্দুক হাতে ধাওয়া!

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৪:৩৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯

কুকুরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় বন্দুক হাতে ধাওয়া!

পোষা কুকুরের উৎপাতে অতিষ্ঠ হয়ে অভিযোগ করতে গিয়ে কুকুরগুলোর মালিকের কাছে বন্দুক হাতে ধাওয়া খেয়েছেন স্থানীয়রা। অদ্ভুত এই ঘটনাটি ঘটেছে ঢাকার মাদারটেকের সিঙ্গাপুর গলিতে।

স্থানীয়দের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ওই বন্দুকধারীকে আটক করলেও, পরে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।

অস্ত্র নিয়ে ধাওয়া করা ওই ব্যক্তির নাম লিটন খান।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তিনি সিঙ্গাপুর প্রবাসী ও মানসিকভাবে ‘অসুস্থ’। কিছুদিন আগে তার স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে যায়। এরপর গত সপ্তাহেই মাদারটেকের সিঙ্গাপুর গলির ওই বাসায় ওঠেন লিটন।

স্থানীয়রা জানান, লিটন খানের পোষা চারটি বিদেশি কুকুর রয়েছে। তিনি যে বাসায় ভাড়া থাকছেন, তার পাশেই স্থানীয় মসজিদ। তার কুকুরগুলো মাঝেমধ্যেই মসজিদের ভেতরে চলে যায়। এছাড়া নামাজ পড়তে আসা ব্যক্তিদেরও বিরক্ত করে।

এ নিয়ে শুক্রবার লিটনের কাছে অভিযোগ জানাতে যান মসজিদ কর্তৃপক্ষ। আলোচনার এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে একটি এয়ারগান নিয়ে কমিটির সদস্যদের ধাওয়া করেন লিটন। এতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। পরে স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে এয়ারগানসহ লিটনকে আটক করে পুলিশ।

শনিবার সবুজবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহবুব আলম পরিবর্তন ডটকমকে জানান, লিটন খান মানসিকভাবে অসুস্থ, সম্প্রতি স্ত্রীর সঙ্গেও তার বিচ্ছেদ ঘটে। সিঙ্গাপুর ফেরত এই ব্যক্তি তার বন্ধুর বাসায় ভাড়া উঠেছিলেন।

তিনি বলেন, গতকাল মসজিদ কমিটির লোকজন তার বাসায় গিয়ে কুকুরগুলোকে সামলে রাখার বিষয়ে কথা বলার সময় বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। পরে তাদের ভয় দেখানোর জন্য ঘরে থাকা নষ্ট এয়ারগান (পাখি শিকারের বন্দুক) নিয়েই ধাওয়া করে সে।

ঘটনার পর এয়ারগানটি জব্দ করা হয়েছে। আর লিটনের মানসিক অবস্থা বিবেচনায় থানায় লিখিত মুচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলেও জানান সবুজবাগ থানার ওসি।

পিএসএস/এসবি

 

রাজধানী: আরও পড়ুন

আরও