স্বামী অপছন্দ, বিয়ের ৫ দিন পর স্ত্রীর আত্মহত্যা

ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

স্বামী অপছন্দ, বিয়ের ৫ দিন পর স্ত্রীর আত্মহত্যা

ঢামেক প্রতিবেদক ৯:৫৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯

স্বামী অপছন্দ, বিয়ের ৫ দিন পর স্ত্রীর আত্মহত্যা

রাজধানীতে গ্রীন ইউনিভার্সিটির শেষবর্ষের এক ছাত্রী ঘরের জানালার গ্রিলের সঙ্গে গামছা পেচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

মঙ্গলবার রাত সোয়া ২টায় রাজধানীর সবুজবাগ থানাধীন ৩৫/৪ মধ্য বাসাবো চাচার বাসায় এ ঘটনাটি ঘটে।

নিহত সাদিয়া ইসলাম আশা (২৫) টাঙ্গাইল জেলার গোপালপুর থানার ঘোড়ামারা গ্রামের শফিকুল ইসলামের একমাত্র মেয়ে। স্বামী হাফিজুর রহমান পাশাপাশি গ্রামের বাসিন্দা। বর্তমানে ঢাকার মিরপুরের শেওড়াপাড়ায় তার বাসা।

অচেতন অবস্থায় আশাকে উদ্ধার করে ভোর পৌনে ৪টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতলের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের চাচা রফিকুল ইসলাম জানান, মেয়ের অনুমতি সাপেক্ষে ৬ সেপ্টেম্বর মেয়ের বিয়ে হয়। ওইদিন মেয়েকে নিয়ে টাঙ্গাইল চলে যায় নতুন জামাই। সেখান থেকে জামাইসহ গত রোববার ঢাকা সবুজবাগে চলে আসে। আসার পর জানায়- ছেলে আমার মোটেও পছন্দ হয়নি আমি তার সাথে সংসার করব না, আপনারা তারাতাড়ি ব্যবস্থা নেন।

চাচা রফিকুল ইসলাম বলেন, গতকাল মঙ্গলবার ছেলেকে নিয়ে মেয়ের পরিবারের লোকজন বসেছিল এ বিষয়ে একটা সমাধানের জন্য।

তিনি বলেন, ‘রাতে স্বামী-স্ত্রী একসঙ্গে ঘুমায়। পরে স্বামী জেগে দেখেন জানালার গ্রিলের সঙ্গে গামছা পেচিয়ে ফাঁস দিয়েছে আশা। পরে আমাদেরকে ডাকাডাকি করলে সেখান থেকে মেডিকেলে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।’

চাচা রফিকুল ইসলাম পরিবর্তন ডটকমকে জানান, ‘ছেলে অপছন্দ তাই অভিমান করে মেয়ে আত্মহত্যা করেছে।’

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জানান, ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহটি ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে।

এইচআর

 

রাজধানী: আরও পড়ুন

আরও