কারবালা স্মরণে রাজধানীতে তাজিয়া মিছিল

ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

কারবালা স্মরণে রাজধানীতে তাজিয়া মিছিল

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১:১৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯

বিয়োগান্তক কারবালা স্মরণে মঙ্গলবার রাজধানীতে তাজিয়া মিছিল হয়েছে। সকাল ১০টার দিকে পুরান ঢাকার হোসনি দালানের ইমামবাড়া থেকে প্রধান তাজিয়া মিছিল বের হয়।

এটি রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক ঘুরে দুপুর পৌনে ১টার দিকে ধানমন্ডি লেকে গিয়ে শেষ হয়। নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল এতে শরিক হয়।

পুলিশের কড়াকড়ির মধ্যেও শিয়া সম্প্রদায়ের মানুষেরা মিছিলে হযরত মুহাম্মদ (সা.)- এর দৌহিত্র ইমাম হোসেনের প্রতি শোক প্রকাশ করে মাতম করেন।

১০ মহররম, পবিত্র আশুরাকে মুসলিম বিশ্বে ত্যাগ ও শোকের দিন হিসেবে পালন করা হয়। হিযরি ৬১তম বর্ষের (৬৮০ খ্রিস্টাব্দ) এ দিনে কারবালার ফোরাত নদীর প্রান্তরে হযরত মুহাম্মদ (সা.)- এর দৌহিত্র ইমাম হোসেন এজিদ বাহিনীর হাতে শহীদ হন।

কারবালার রক্তাক্ত স্মৃতি স্মরণে নিজের দেহে ছুরি দিয়ে আঘাত করে রক্ত ঝরিয়ে মাতম করেন শিয়া সম্প্রদায়ের মানুষেরা। তবে এবার পুলিশ আগেই ছুরি ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা দেয়। ফলে মিছিলেও এমনটি দেখা যায়নি।

পুলিশের নিরাপত্তার মধ্যে মিছিলটি বকশীবাজার রোড, নিউ মার্কেট এবং ধানমন্ডি ২ নম্বর সড়ক পার হয়ে ধানমন্ডি লেকে যায়। মিছিলের পুরোভাগে কারবালা স্মরণে কালো চাঁদোয়ার নিচে কয়েকজন বহন করেন ইমাম হোসেনের (রা.) প্রতীকী কফিন।

সামনে ছিল ইমাম হাসান ও ইমাম হোসেনের দুটি প্রতীকী ঘোড়া। দ্বিতীয় ঘোড়ার জিন রক্তের লালে রাঙানো। দুটি কালো গম্বুজ বহন করা হয় তাদের মা বিবি ফাতেমা স্মরণে। আর লাল, কালো, সবুজসহ নানা রঙয়ের নিশান বহন করেন অংশগ্রহণকারীরা। বেশিরভাগেরই পরনে ছিল কালো অথবা সাদা পাঞ্জাবি-পাজামা। তারা বুক চাপড়ে, ‘হায় হোসেন, হায় হোসেন’ মাতমে ফোরাত তীরের কারাবালার ঘটনাকে স্মরণ করেন।

আশুরা উপলক্ষে মঙ্গলবার বাংলাদেশে সরকারি ছুটি। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনটি স্মরণে বাণী দিয়েছেন।

ওএস/আইএম

 

রাজধানী: আরও পড়ুন

আরও