লিভার দিয়েও সিরাতুলকে বাঁচাতে পারলেন না মা

ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

লিভার দিয়েও সিরাতুলকে বাঁচাতে পারলেন না মা

পরিবর্তন প্রতিবেদক: ৭:৫৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০৮, ২০১৯

লিভার দিয়েও সিরাতুলকে বাঁচাতে পারলেন না মা

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) মারা গেছেন ২০ বছর বয়সী সিরাতুল ইসলাম শুভ। অথচ দেড় মাস আগে এই হাসপাতালেই প্রথম রোগী হিসেবে লিভার ট্রান্সপ্লান্ট (যকৃৎ প্রতিস্থাপন) হয়েছিল তার।

গত আগস্ট মাসে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে সিরাতুল মারা গেলেও সম্প্রতি তা প্রকাশ পায়।

রোববার বিএসএমএমইউর উপাচার্য অধ্যাপক কনক কান্তি বড়ুয়া, 'সফলভাবে লিভার ট্রান্সপ্লান্টের পর সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছিলেন সিরাতুল। কিন্তু বাড়িতে গিয়ে তিনি ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হন। তিনি শেষ পর্যায়ে আমাদের কাছে এসেছিলেন, আমরা তাকে বাঁচাতে পারিনি।'

গত ২৪ জুন বিএসএমএমইউতে প্রথম রোগী হিসেবে সিরাতুলের লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্ট করেন চিকিৎসকরা। বিএসএমএমইউর হেপাটোবিলিয়ারি, প্যানক্রিয়েটিক ও লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্ট সার্জারি বিভাগে এ সফল অস্ত্রোপচার হয়।

লিভার প্রতিস্থাপনে সহযোগিতা করেন ভারতের খ্যাতনামা লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্ট সার্জন ড. বালাচান্দ্র মেনন ও তার চিকিৎসক দল।

ওইদিন ভোর ৬টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত অস্ত্রোপচার করা হয়। মোট ৬০ জনের টিম ঐতিহাসিক এ অস্ত্রোপচারে অংশ নেন।

হাসপাতালে আসার মাত্র ২৫ দিনের মাথায় লিভার প্রতিস্থাপনকারী ২০ বছর বয়সী যুবক সিরাতুল ও লিভারদাতা ৪৭ বছর বয়সী গর্ভধারিণী মা রোকসানা বেগম সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছাড়েন। কিন্তু লিভার দিয়েও ছেলেকে বাঁচাতে পারলেন না এই দুর্ভাগা মা। আগস্ট মাসে কেড়ে ডেঙ্গু কেড়ে নিল সিরাতুলের প্রাণ।

এবার বর্ষার শুরুতে জুন মাসেই বাংলাদেশে এইডিস মশাবাহিত ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। জুলাই ও অগাস্টে তা ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়ে। শুধু অগাস্টেই আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ হাজার ছাড়িয়ে যায়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে শনিবার পর্যন্ত ডেঙ্গু সন্দেহে ১৯২টি মৃত্যুর তথ্য আসে। তার মধ্য থেকে ৯৬টি পর্যালোচনা করে ৫৭টি মৃত্যু ডেঙ্গুতে বলে নিশ্চিত করেছে তারা।

ওএস/পিএসএস

 

রাজধানী: আরও পড়ুন

আরও