রিপোর্ট নেয়াকে কেন্দ্র করে ঢামেকে সংঘর্ষ

ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

রিপোর্ট নেয়াকে কেন্দ্র করে ঢামেকে সংঘর্ষ

ঢামেক প্রতিনিধি ৫:১২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০১৯

রিপোর্ট নেয়াকে কেন্দ্র করে ঢামেকে সংঘর্ষ

রিপোর্ট আগে নেয়াকে কেন্দ্র করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে দুপক্ষের সংঘর্ষে কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন।

রোববার দুপুর সাড়ে ১২টায় হাসপাতালের নতুন ভবনের দ্বিতীয় তলার প্যাথলজি বিভাগে এ সংঘর্ষ হয়।

ঢামেক জরুরি বিভাগে ডিউটিরত ব্রাদার মো. রাসেল জানান, দুপুর সাড়ে ১২টায় তার এক আত্মীয়ের রক্তের রিপোর্ট নিতে তিনি প্যাথলজি বিভাগে যান।

তার দাবি, তিনি অনেকক্ষণ লাইনে থাকার পরও রিপোর্ট না পেয়ে রিপোর্ট প্রদানকারী কর্মকর্তাকে দেরি হওয়ার কারণ জানতে চান। এনিয়ে তাদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে রিপোর্ট প্রদানকারী ওই ব্যক্তি তার (ব্রাদার রাসেল) কলার ধরে মারধর করেন।

রাসেল জানান, এসময় তার সঙ্গে থাকা আরও তিনজন এর প্রতিবাদ করলে তাদেরও মারধর করা হয়।

এ খবর শুনে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন ঢামেক হাসপাতাল পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন। তিনি হ্যান্ড মাইকের মাধ্যমে সবাইকে শান্ত হওয়ার আহ্বান জানান।

এর পর পরিস্থতি শান্ত হয়।

এদিকে ‘প্যাথলজি বিভাগে তিনজন নার্সকে আটকে রেখে মারধর করা হচ্ছে’ এমন খবর হাসপাতালে ছড়িয়ে পড়লে অন্য নার্সরা মিছিল সহকারে প্যাথলজি বিভাগে গেলে ফের সংঘর্ষ হয়।

প্যাথলজি বিভাগের দায়িত্বরত রুবেল নামের এক কর্মচারী জানান, নার্সদের চিল্লাচিল্লির একপর্যায়ে প্যাথলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. আজিজ বেরিয়ে এলে তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করা হয়।

এ ব্যাপারে ডা. আজিজের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘আমি তাদের বোঝানোর চেষ্টা করি, একপর্যায়ে তারা আমার ওপর হামলা করে।’

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম নাছিরুদ্দিন পরিবর্তন ডটকমকে জানান, এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে কমিটিকে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন পেলে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এসবি

 

রাজধানী: আরও পড়ুন

আরও