উত্তরায় নিরাপত্তাকর্মীর রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার

ঢাকা, ২৪ জুন, ২০১৯ | 2 0 1

উত্তরায় নিরাপত্তাকর্মীর রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার

ঢামেক প্রতিনিধি ১০:৫৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১১, ২০১৮

উত্তরায় নিরাপত্তাকর্মীর রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার

রাজধানীর উত্তরায় খোকন মণ্ডল (২৭) নামে এক নিরাপত্তা কর্মীর রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বেলা ২টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে নিয়ে আসেন উত্তরা পশ্চিম থানার এসআই মো. জিন্নাত খান।

এর আগে বুধবার (১০ অক্টোবর) উত্তরার ১০নং সেক্টরের ২নং রোডের ২৯নং বাসা থেকে খোকন মণ্ডলের মৃতদেহ উদ্ধার করেন এসআই জিন্নাত।

তিনি জানান, উত্তরার ওই বাসায় ৫ বছর যাবত দারোয়ানের কাজ করে আসছেন খোকন মণ্ডল। গতকাল বুধবার সন্ধ্যা বাড়িওয়ালার স্ত্রী সুমাইয়া বেগম ১২নং সেক্টর থেকে বাসায় এসে অনেক খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে খোকন মণ্ডলের ভাই সুজন মণ্ডলের কাছে ফোন দেন।

সেখানেও কোনো খোঁজ না পেয়ে অবশেষে থানায় খবর দিলে বুধবার (১০ অক্টোবর) রাত পৌনে ১০টায় ওই বাসায় গিয়ে ঘরের তালা ভেঙে খোকন মণ্ডলের রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার করি। উদ্ধারের সময় ওই ঘরে একটা গুলির খোসা পাওয়া যায় বলে জানান এসআই জিন্নাত খান।

মৃত খোকনের ছোটভাই সুজন মণ্ডল জানান, তিনি নিজে গাজীপুরের একটি পোশাক তৈরি কারখানায় কাজ করেন। গতকাল সকালে বাসা থেকে তিনি গাজীপুরে কারখানায় যান। তখন বড়ভাই খোকন বাসায়ই ছিলো।

বিকেল ৫ টার দিকে বাসার মালিকের স্ত্রী সুরাইয়া বেগম খোকনকে দেখতে না পেয়ে ও তার রুম তালাবন্ধ দেখে ছোটভাই সুজনকে ফোন করেন। সুজন বাসায় এসে তাকে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেন। না পেয়ে পুলিশে খবর দিলে থানা পুলিশ ও সিআইডি'র টিম এসে ওই বাসার নিচতলায় তাদের রুমের তালা ভেঙ্গে ভিতরে মেঝেতে খোকনের মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে। এসময় তার নাক মুখ দিয়ে রক্ত বের হচ্ছিলো। তবে তার সাথে কারো কোনো দ্বন্দ্ব ছিলোনা বলেও জানান তিনি।

দেড় মাস আগে এক মেয়েসহ তার স্ত্রী গ্রামের বাড়ি চলে যায়। মৃত খোকন লালমনিরহাট সদর উপজেলার কাশিপুর গ্রামের দেলোয়ার হোসেন মণ্ডলের ছেলে। বর্তমানে উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টরের ২২ নম্বর রোডের ২৯ নম্বর বাসার নিরাপত্তাকর্মীর দায়িত্বে ছিলেন। ছোটভাই সুজন মণ্ডলকে নিয়ে উত্তরার ওই ৬ তলা বাসার নিচতলায় থাকতেন তিনি।

এমআর/আরজি

 

রাজধানী: আরও পড়ুন

আরও