ঝুলছিল স্ত্রীর লাশ, বিছানায় পড়ে ছিল গলাকাটা স্বামী

ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

ঝুলছিল স্ত্রীর লাশ, বিছানায় পড়ে ছিল গলাকাটা স্বামী

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৪:০৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৭, ২০১৮

ঝুলছিল স্ত্রীর লাশ, বিছানায় পড়ে ছিল গলাকাটা স্বামী

রাজধানীর গোলাপবাগের একটি বাসা থেকে জোস্না বেগম (৩০) নামের এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় ওই নারীর স্বামী স্বপন মিয়াকে (৪০) আংশিক গলাকাটা এবং দুই শিশু সন্তানকে অচেতন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ওয়ারি বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) ফরিদ উদ্দিন পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, প্রাথমিকভাবে আমরা জানতে পেরেছি ওই নারী তার দুই শিশু সন্তানকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে অচেতন করে।

এরপর স্বামীর হাত-পা বেঁধে গলাকেটে হত্যার চেষ্টা করে। একপর্যায়ে স্বামী মারা গেছেন ভেবে তিনি নিজে ঘরের সিলিংয়ের সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

জোস্নার চাচাতো ভাই আবদুল করিম পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ওদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো। আজও ঝগড়ার খবর পেয়ে আমরা ছুটে আসি। পরে জোস্নাকে ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পাই। আর তার স্বামী স্বপন আংশিক গলাকাটা এবং দুই সন্তান ইফতি ও তোহা অচেতন অবস্থায় বিছানায় পড়েছিল। দ্রুত তাদের ঢাকা মেডিকেলে নেয়া হয়।

তিনি বলেন, হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক জোস্নাকে মৃত ঘোষণা করেন। স্বপন ও দুই শিশুকে ভর্তি করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে ইফতি-তোহাকে ঘুমের ওষুধ খাওয়ানো হয়েছে, তাদের পাকস্থলী ওয়াশ করা হয়েছে।

পিএসএস-এমআর/এসবি