বাজেটে ৭০ ভাগ খুশি বিজিএমইএ

ঢাকা, ১৩ জুন, ২০১৯ | 2 0 1

বাজেটে ৭০ ভাগ খুশি বিজিএমইএ

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৮:৪৯ অপরাহ্ণ, জুন ১৩, ২০১৯

বাজেটে ৭০ ভাগ খুশি বিজিএমইএ

প্রস্তাবিত ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের বাজেটে শতভাগ খুশি হতে না পারলেও ‘অন্তত ৭০ ভাগ’ খুশি বলে জানিয়েছে বিজিএমইএ।

তৈরি পোশাক উৎপাদক ও রফতানিকারক ব্যবসায়ীদের এই শীর্ষ সংগঠনের সভাপতি রুবানা হক এ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিজিএমইএ ভবনে সংবাদ সম্মেলনে তিনি প্রস্তাবিত বাজেটে তৈরি পোশাক শিল্পের জন্য প্রায় ৩ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনাকে ‘যৎ সামান্য’ বলেও মন্তব্য করেন।

বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, ‘এ বাজেট নিসন্দেহে জনকল্যাণমুখী। কিন্তু, শিল্পের দিক থেকে বললে, শতভাগ খুশি না হলেও ৭০ ভাগ খুশি আমরা।’

পোশাক খাতে ঘোষিত প্রণোদনা নিয়ে খুশি হতে না পারার কারণ ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, ‘ক্যাশ ইনসেনটিভ আসলে ছোট্ট একটি ফিগার। পোশাক খাত এমন একটি চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হচ্ছে, যেখানে এই ইনসেনটিভ আমরা যৎ সামান্য মনে করি। আরও তিন শতাংশ আমাদের জন্য বরাদ্দ থাকলে ভাল হতো।’

রুবানা হক জানান, বিজিএমইএ ৮টি পণ্যে ‘সেফটি ইকুইপমেন্ট’ চেয়েছে। কিন্তু, এখন পাঁচটিতেও পাওয়ার বিষয়েও তারা হতাশ।

তিনি বলেন, ‘আমরা এক্সাম্পশন চেয়েছিলাম। ওয়াসায়, পানি বিদ্যুতে শতভাগ এক্সাম্পশন এসেছে, সেজন্য কৃতজ্ঞ। আটটি পণ্যে সেফটি ইকুইপমেন্ট চেয়েছিলাম, দেয়া হয়েছে ৫টিতে। মনে করি, বাকিগুলোতে দিলে ভালো হতো আমাদের জন্য।’

যোগাযোগ খাতে বরাদ্দ বাড়ানোকে স্বাগত জানিয়ে রুবানা হক বলেন, ‘শিল্পের সক্ষমতা বাড়ানোর জন্য উৎসাহ দেবে। ইনফ্রাস্ট্রাকচার কমিউনিকেশনের জন্য খুব দরকার। আগে কমিউনিকেশন বাজেট ছিল ৫৩ হাজার ৮১০ কোটি টাকা, সেখানে এবার ৬১ হাজার ৪৫৫ কোটি টাকা। আমরা মনে করি, এটিও আমাদের জন্য ভালো দিক। বাণিজ্যের জন্য অত্যন্ত জরুরি।’

অবশ্য ভ্যাট ও কাস্টমস আইনে সাংঘর্ষিক জায়গা যত দ্রুত সম্ভব দূর করার প্রতিশ্রুতি আসায় স্বস্তি প্রকাশ করেন তিনি।

আমদানি-রফতানির ক্ষেত্রে স্ক্যানার ব্যবহারের পরিকল্পনাকে স্বাগত জানিয়ে বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, ‘আমাদের পোশাক খাতে স্বচ্ছতা আসুক, আমরা সে নিশ্চয়তা চাই। আমরা মনে করি, অনেক রকম দুর্নাম থেকে আমাদের অব্যাহতি দেয়া হবে।’

ব্যাংক ঋণে সুদের হার এক অংকে নামিয়ে আনতে সরকারের ঘোষণা দ্রুত কার্যকরেরও আহ্বান জানান তিনি।

রুবানা হক আরও বলেন, ‘শিশুদের জন্য অ্যালোকেশন আলাদা আছে। কিন্তু, নারীদের জন্য দেখিনি। নারী উদ্যোক্তাদের শো-রুমের ওপর কোনো ট্যাক্স ধরা হবে না, সেটি অবশ্য আমরা যৎ সামান্য মনে করি।’

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সংসদে ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন করেন।

এফএ/আইএম

আরও পড়ুন...
অগ্রিম করমুক্ত আয়সীমা বাড়ল
বাজেটে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের সুবিধা বাড়ল
কমবে গোখাদ্য, মাছ এবং হাঁস-মুরগীর খাদ্যের দাম
সবার জন্য পেনশন
ইসি-পিএসসিসহ ১৫ বিভাগ-মন্ত্রণালয়ে বরাদ্দ কমল
বিড়ি-সিগারেটের দাম বাড়বে
আবার এমপিওভুক্ত হবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান
বাজেটে সামাজিক নিরাপত্তা খাতে বরাদ্দ ৭৪ হাজার ৩৬৭ কোটি টাকা
ব্যাংকিং খাত সংস্কারে ৬ প্রস্তাব
ফোনের কলরেট বাড়বে, শ’তে ২৭ টাকা নেবে সরকার
পরিবহন খাতে এডিপির ২ লাখ ২ হাজার ৭২১ কোটি টাকা
বাজেট শুনতে সাবেক অর্থমন্ত্রী মুহিতও ছিলেন সংসদে
পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের প্রত্যাশা প্রাপ্তির সমন্বয় হয়েছে বাজেটে: ডিএসই

 

বাজেট ভাবনা: আরও পড়ুন

আরও