দেশে ফিরে বন্ধুদের বলব বইমেলার কথা : ভলফগাং

ঢাকা, শনিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

দেশে ফিরে বন্ধুদের বলব বইমেলার কথা : ভলফগাং

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৮:৩৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০১৭

দেশে ফিরে বন্ধুদের বলব বইমেলার কথা : ভলফগাং

একুশের বই মেলা লেখক-পাঠক ও প্রকাশকদের মিলন মেলা। এই বইমেলায় শুধু এদেশের মানুষ নয়, বিদেশ থেকেও অনেক বইপ্রেমী আসেন। বইমেলা উপলক্ষে জার্মানি থেকে আগত বই প্রেমীদের একজন ভলফগাং। পাঠকদের জানিয়ে দেয়া হচ্ছে তার সঙ্গে কথোপকথনের কিছু অংশ।

জার্মানির বার্লিনে অবস্থিত টেকনিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের এনভায়রনমেন্ট কেমিস্ট্রির প্রফেসর ড. ভলফগাং ফ্রেনসেল বলেন, এখানে মানুষ বিশেষ করে তরুণ-তরণীরা এত বই কিনছে! অথচ বিদেশে থেকে আমরা জানি, বাঙালিরা পড়ালেখায় পিছিয়ে। আমি বইমেলায় এসে আশ্চর্য। এখানে না আসলে আমি জানতে পারতাম না, এদেশের বইপ্রেমীদের কথা। ইউরোপের ছেলে-মেয়েরা ই-বুক পড়েন। তারা বই কিনেন না। বাংলাদেশও নিশ্চয়ই এসব থেকে পিছিয়ে নেই, তারপরও এদেশের মানুষ এত বই কিনছেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে অবস্থিত জার্মান বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. সাইফুল্লাহ খন্দকারের কাছে ভাষা আন্দোলন সম্পর্কে এবং বইমেলা সম্পর্কে জানতে চাই। তিনি আমাকে ভাষা আন্দোলন সম্পর্কে বলেছেন।  দেখানোর জন্য আমাকে বইমেলায় নিয়ে এসেছেন।

তিনি আরও বলেন, আমি দেশে ফিরে বন্ধুদের একুশের বইমেলার কথা বলব। এবং আমি বাবার আসবো বইমেলায়। আমি বাংলা ভাষায় কথা বলতে পারি না কিন্তু শুনতে ভালো লাগছে। বাংলাদেশ এবং দেশের মানুষদের অনেক ভালো লেগেছে।

তিনি আরও বলেন, জার্মানিতেও বইমেলা হয়। সেখানে প্রতিদিন ৮০ হাজারের মতো মানুষ যায়। তবে একুশের বইমেলায় মানুষ দেখে মনে হচ্ছে, এখানে প্রতিদিন ১০ লাখ মানুষ আসেন।

জিজাক/একে

 

গ্রন্থ আলোচনা: আরও পড়ুন

আরও