শট-ফাউলে জার্মানি, পাশ-কার্ডে আর্জেন্টিনা

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

শট-ফাউলে জার্মানি, পাশ-কার্ডে আর্জেন্টিনা

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:৩১ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০১৯

শট-ফাউলে জার্মানি, পাশ-কার্ডে আর্জেন্টিনা

ম্যাচের স্কোর ২-২। মানে গতকাল রাতে বিশ্ব ফুটবলের দুই পরাশক্তি জার্মানি ও আর্জেন্টিনার প্রীতি ম্যাচে কেউ জেতেনি। স্কোরের শুধু নয়, ডর্টমুন্ডের সিগনাল ইদুনা পার্কের ম্যাচটিতে দুই দলের দ্বৈরথে মিল ছিল আরও অনেক কিছুতেই। ম্যাচের প্রথমার্ধটা ছিল স্বাগতিক জার্মানির। দুটো গোলই তারা করেছে প্রথমার্ধে।

সফরকারী আর্জেন্টিনা তার জবাব দিয়েছে দ্বিতীয়ার্ধে। এই অর্ধটা নিজেদের করতে তারাও দুটো গোলই করেছে দ্বিতীয়ার্ধে। স্কোর যাই হোক, ম্যাচটির পরিসংখ্যান বলছে, সিগনাল ইদুনা পার্কে আক্রমণ গড়া এবং শট নেওয়ায় এগিয়ে ছিল জার্মানি।

আক্রমণের ঢেউ তুলে জার্মানরা আর্জেন্টিনার গোলমুখ লক্ষ্য করে শট নিয়েছে ১৩টি। তার মধ্যে ৬টি শট ছিল লক্ষ্যে। মানে পোস্টে। যার দুটিতে গোল হয়েছে। বিপরীতে আর্জেন্টিনা জার্মানির গোলপোস্ট লক্ষ্য করে শট নিয়েছে ১১টি। যার মধ্যে মাত্র ৩টি শট ছিল লক্ষ্যে। তার দুটি থেকেই গোল পেয়েছে আর্জেন্টিনা।

জার্মানরা এগিয়ে ছিল ফাউল করার ক্ষেত্রেও। ম্যাচে মোট ১৬টি ফাউল করেছে জোয়াকিম লোর শিষ্যরা। সেখানে আর্জেন্টাইনরা ফাউল করেছে ১২টি। অন্য দিকে সফরকারী আর্জেন্টিনা এগিয়ে ছিল বল পজেশন, পাশ এবং কার্ড প্রাপ্তিতে।

ম্যাচে মোট ৫৫ শতাংশ বল পজেশন ছিল আর্জেন্টিনার। বিপরীতে জার্মানরা নিজেদের পায়ে বল রাখতে পেরেছে ৪৫ শতাংশ সময়। পজেশনে এগিয়ে থাকায় আর্জেন্টাইনরা ম্যাচে পাশও খেলেছেন বেশি। ম্যাচে মোট ৫৯৭টি পাশ দিয়েছেন আর্জেন্টাইনরা। বিপরীতে জার্মানরা পাশ দিয়েছেন ৫০১টি।

নিখূত পাশ দেওয়াতেও এগিয়ে আর্জেন্টিনা। মোট পাশের ৮৯ শতাংশ নিখূঁত পাশ দিয়েছেন তারা। জার্মানরা নিখূঁত পাশ দিয়েছেন ৮৬ শতাংশ। জার্মানরা বেশি ফাউল করলেও কার্ড পেয়েছেন আর্জেন্টাইনরা বেশি। ম্যাচে লালকার্ড পাননি কেউই। তবে আর্জেন্টাইনরা ৩টি হলুদ কার্ড পেয়েছেন। বিপরীতে জার্মানরা একটিও হলুদকার্ড পায়নি।

পুরো ম্যাচে ৫ বার অফসাইডের খড়্গে পা দিয়েছেন জার্মানির খেলোয়াড়েরা। আর্জেন্টাইনরা এই অপরাধ জালে পা দেননি একবারও। জার্মানি কর্নার পেয়েছে ৪টি, আর্জেন্টাইনরা পেয়েছে ৫টি।

ম্যাচের এই পরিসংখ্যান বলছে, স্কোরকার্ডের মতো মাঠের দ্বৈরথেও দুই দল ছিল সমানে সমান। এক জায়গায় জার্মানরা এগিয়ে ছিল তো অন্য জায়গায় আর্জেন্টাইনরা।

কেআর

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও