মেয়ের 'গ্র্যাজুয়েশন সেরিমনি'তে একসঙ্গে সাইফ-অমৃতা

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

মেয়ের 'গ্র্যাজুয়েশন সেরিমনি'তে একসঙ্গে সাইফ-অমৃতা

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:৪৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯

মেয়ের 'গ্র্যাজুয়েশন সেরিমনি'তে একসঙ্গে সাইফ-অমৃতা

শুধু অভিনয় নয় পড়াশোনাতেও তুখোর সাইফ-অমৃতা কন্যা সারা আলি খান। নিউ ইয়র্কের কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাস ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ে স্নাতক হন সারা। সম্প্রতি, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল সারা আলি খানের সেই গ্র্যাজুয়েশন সেরিমনির ভিডিও।

নিউ ইয়র্কের কলম্বিলা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সারা স্নাতন হন ২০১৬ সালে। তার বিষয় ছিল ইতিহাস ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে সারার গ্র্যাজুয়েশন সেরিমনির ভিডিও। যেখানে একসঙ্গে পাশাপাশি বসে গল্প করতে দেখা গেছে সাইফ আলি খান ও অমৃতা সিংকে। বেশ বোঝা গেল মেয়ের স্নাতক হওয়া নিয়ে বাবা-মা দুজনেই বেশ খুশি। সারার গ্র্যাজুয়েশন সেরিমনির অনুষ্ঠানের মঞ্চে সারার পাশে দেখা গেল নীতা আম্বানি ও আমির খানকে।

সাইফ ও অমৃতার বিবাহ বিচ্ছেদ হয় ২০০৪ সালে। জানা যায়, বিচ্ছেদের পর ছেলেমেয়েদের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি সাইফকে দেননি অমৃতা। পরে অবশ্য, তাদের সম্পর্ক অনেকটাই স্বাভাবিক হয়ে যায়। বেশকিছুদিন আগে অমৃতা সিং এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, খুব সম্ভবত তিনি সাইফ শেষবার একসঙ্গে হয়েছিলেন, কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে সারার গ্র্যাজুয়েশন শেষ হওয়ার আগে কিংবা পড়ে। অমৃতা সিংয়ের কথায়, তবে তার ঠিক মনে নেই।

তবে সারার যখন কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার জন্য নিউ ইয়র্কে যাচ্ছিল, তখন সারাই চেয়েছিল তার বাবা-মা তাকে একসঙ্গে সেখানে রাখতে যান। আর সারার ইচ্ছাতেই তিনি এবং সাইফ একসঙ্গে হয়েছিলেন বলেই জানান অমৃতা।

বাবা-মাকে ফের একসঙ্গে দেখার অভিজ্ঞতা প্রসঙ্গে সারা বলেন, 'এটা ভীষণই সুন্দর একটা মহূর্ত, যে আমি কলেজে যাচ্ছি মা এবং আব্বা আমাকে ছাড়তে এসেছে। আমি বাবার সঙ্গে ডিনারে যাচ্ছিলাম, তারপর ঠিক হল মাকেও সেখানে ডেকে নেওয়া যাক। মা সেখানে এলো এবং আমরা তিনজনে সুন্দর কিছু মুহূর্ত কাটিয়েছিলাম।' সারা আরো বলেন, তার মনে আছে, হস্টেলে তাকে রেখে আসার সময় মা অমৃতা তার বিছানা ঠিক করে দিচ্ছিলেন। আর সাইফ তার পড়ার টেবিলের লাইট লাগাচ্ছিলেন। আর মুহূর্তগুলো তার কাছে ভীষণই সুন্দর মুহূর্ত বলে জানান সারা।

ভিডিও লিংক...

ইসি/

 

বলিউড ও অন্যান্য: আরও পড়ুন

আরও