মায়ের জন্মদিন ও ভাই-ভাবীর বিবাহবার্ষিকী একসঙ্গে সেলিব্রেট করলেন ঐশ্বরিয়া

ঢাকা, সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯ | ২ আষাঢ় ১৪২৬

মায়ের জন্মদিন ও ভাই-ভাবীর বিবাহবার্ষিকী একসঙ্গে সেলিব্রেট করলেন ঐশ্বরিয়া

পরিবর্তন ডেস্ক: ১০:১২ পূর্বাহ্ণ, মে ২৫, ২০১৯

মায়ের জন্মদিন ও ভাই-ভাবীর বিবাহবার্ষিকী একসঙ্গে সেলিব্রেট করলেন ঐশ্বরিয়া

মায়ের কাছে সন্তান আর মেয়ের কাছে মা, এরা সবসময়ের জন্যই একে অপরের সবচেয়ে কাছের মানুষ। ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন ও তার মা বৃন্দা রাইয়ের ক্ষেত্রেও সম্পর্কটা ঠিক এমনই। ২৩ মে, বৃহস্পতিবার ছিল মা বৃন্দা রাইয়ের জন্মদিন। এইদিন বিশেষভাবে মায়ের জন্মদিন সেলিব্রেট করেন ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন।

ভারতের জিনিউজ পত্রিকার খবরে বলা হয়, প্রত্যেকবারই মায়ের জন্মদিন বিশেষভাবে সেলিব্রেট করেন ঐশ্বরিয়া। এবারও তার অন্যথা হল না। তবে শুধু মায়ের জন্মদিনই নয়, ২৩ মে দিনটি ঐশ্বরিয়ার কাছে আরও একটি কারণে স্পেশাল। এই দিনটিই ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের ভাই আদিত্য রাই ও শ্রীমার বিয়ের দিনও বটে। তাই এই দুই সেলিব্রেশনই হল একসঙ্গে। এই দিন কেক কাটার পাশাপাশি বিশেষ ডিনারেরও আয়োজন করেন ঐশ্বরিয়া। এদিনের সেলিব্রেশনে ঐশ্বরিয়া-অভিষেক, বৃন্দা রাই, শ্রীমা ও আদিত্য ছাড়া উপস্থিত ছিলেন পরিবারের ক্ষুদে সদস্যরাও।

ঐশ্বরিয়ার কাছে মা বৃন্দা রাই ভীষণই কাছের মানুষ। বেশিরভাগ সময়, বিভিন্ন অনুষ্ঠানেই মা বৃন্দা রাই ও মেয়ে আরাধ্যকে কখনওই কাছ ছাড়া করেন না ঐশ্বরিয়া। ২৩ মে মাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে মায়ের প্রতি তার ভালোবাসার কথাও জানান 'রাই'।

অন্যদিকে কীভাবে আদিত্য রাইয়ের সঙ্গে আলাপ, প্রেম ও বিয়ে হয়েছিল, সে কথা সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন ঐশ্বরিয়া ভাবী শ্রীমা রাই। শ্রীমা লিখেছেন, 'আমার বয়স যখন মাত্র ২০ তখন একটা ডিনার পার্টিতে আদিত্যর সঙ্গে আমার আলাপ হয়। সেখান থেকেই বন্ধুত্ব ও প্রেম। আজ থেকে ১৫ বছর আগে আমি আদিত্যকে বিয়ের সিদ্ধান্ত নি।'

প্রসঙ্গত, ঐশ্বরিয়ার ভাবী, শ্রীমা রাই নিজেও একজন মডেল ছিলেন। শ্রীমার কথায়, বাড়িতে ঐশ্বরিয়ার তার সঙ্গে একেবারেই তারকা সুলভ ব্যবহার করে না। বাড়িতে ও শুধুই আমার ননদ। শ্রীমা ও আদিত্যর ছেলে ঐশ্বরিয়াকে গুলু মামী বলে ডাকে বলেও জানান শ্রীমা।

ভিডিও লিংক...

জিজাক/