‘ভাইজান’ শাকিবের অভিনয় যথাযথ, তবে নতুনত্ব নেই

ঢাকা, শনিবার, ২১ জুলাই ২০১৮ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৫

‘ভাইজান’ শাকিবের অভিনয় যথাযথ, তবে নতুনত্ব নেই

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:৫৫ পূর্বাহ্ণ, জুন ২১, ২০১৮

print
‘ভাইজান’ শাকিবের অভিনয় যথাযথ, তবে নতুনত্ব নেই

ঈদুল ফিতরে বাংলাদেশে প্রদর্শনের চেষ্টা করলেও শুধুমাত্র কলকাতায় মুক্তি পেয়েছে ভারতীয় লগ্নির ‘ভাইজান এলো রে’। আর শাকিব খানের সিনেমাটি নিয়ে নিয়ে কলকাতার সমালোচকরা কী বলছেন?

সম্প্রতি স্থানীয় আনন্দলোক প্রকাশ করেছে ‘ভাইজান এলো রে’র রিভিউ। সেখানে শাকিবের অভিনয় সম্পর্কে বলা হয়, ‘অভিনয়ে শাকিব খান যথাযথ। তবে খুব একটা নতুনত্ব কিছু পাওয়া যায়নি তার অভিনয়ে।’ এছাড়া উল্লেখ করা হয়েছে, সিনেমাটি বাংলাদেশ-ভারতের যৌথ প্রযোজনা।

আসুন পড়ে নিই ‘ভাইজান এল। কিন্তু রাজত্ব করতে পারল কি?’ শিরোনামের রিভিউটি—

“জয়দীপ মুখোপাধ্যায়ের চতুর্থ ছবি ‘ভাইজান এল রে’ দেখতে গিয়ে মনে হল, গল্পের প্রথমভাগটা অতটা বড় না হলেও চলত। বরং, পায়েল আর শাকিবের অপ্রয়োজনীয় রোম্যান্সের গান বাদ দিলে চিত্রনাট্যে খানিকটা ভারসাম্য আসত। বাংলাদেশ এবং ভারতের যৌথ প্রযোজনায় তৈরি এই ছবি মূলত অ্যাকশন কমেডি, যাকে অঘোষিতভাবে ডেভিড ধাওয়ানের বিখ্যাত ছবি ‘জুড়য়া’র বাংলা রিমেক বলা যেতে পারে। তবে একটু অন্যরকম!

গল্পের মধ্যে সেরকম নতুনত্ব কিছু নেই। জন্মের পর হারিয়ে যাওয়া দুই যমজ ভাই… এক ভাই আজান (শাকিব) গরিবের ঘরে মানুষ এবং ডাকাবুকো। আর এক ভাই উজান (শাকিব) জমিদারের বাড়িতে জামাইবাবুর হাতে অত্যাচারিত হয়ে জুবুথুবু। তারপর সম্পূর্ণ এন্টারটেনমেন্ট প্যাকেজ! পরিচালক স্ক্রিপ্টে বিশেষ টুইস্ট দেওয়ার চেষ্টা করেননি।

গতে বাঁধা স্ক্রিপ্টের সঙ্গে শাকিব খান, শ্রাবন্তী, পায়েলের গ্ল্যামার কোশেন্ট মিশিয়ে একটা এমন ছবি বানিয়েছেন, যেটা দেখতে গেলে মাথা খাটানোর বিশেষ দরকার নেই। তবে হ্যাঁ, এই ছবিতে অন্তত সমস্ত সুতোকে একটা জায়গায় বাঁধার চেষ্টা করেছেন পরিচালক। তাতে অন্তত ছবির শেষে ‘ওটা কেন এমন হল’ টাইপের প্রশ্ন মাথায় আসবে না।

কিন্তু ওই… চিত্রনাট্যের দুর্বলতার পাশাপাশি সংলাপের জোরও তেমন নেই। ফলে কোথাও নিজে থেকেই হাসি পায়, কোথাও আবার জোর করে হাসতে হয়! অভিনয়ে শাকিব খান যথাযথ। তবে খুব একটা নতুনত্ব কিছু পাওয়া যায়নি তার অভিনয়ে। হিয়া (শ্রাবন্তী) বা রুনার (পায়েল) বিশেষ কিছু করার ছিল না। শ্রাবন্তী তবুও ভালো। কিন্তু পায়েলের জোর করে ‘স’-এর উচ্চারণটা বরং বেশ বিরক্তিকরই লেগেছে। অভিনয়ের কথা যদি বলতে হয় তবে ভিলেনের চরিত্রে শান্তিলাল বেশ দাপুটে অভিনয় করেছেন। বাকিরা কেউই তেমন উল্লেখযোগ্য নন। আলাদা করে বলতে হয় রজতাভ দত্তর কথা। তিনি ভালো। কিন্তু নায়িকার বাবার চরিত্রে সেই এক কমিক রোলের গণ্ডিটা থেকে তিনি এবার একটু বেরিয়ে আসতেই পারেন!”

ডব্লিউএস

 
.



আলোচিত সংবাদ