‘মেয়েদের শাড়ি পরতে না পারাটা লজ্জার’

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ | ৩০ কার্তিক ১৪২৫

‘মেয়েদের শাড়ি পরতে না পারাটা লজ্জার’

পরিবর্তন ডেস্ক ১:২০ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৮

‘মেয়েদের শাড়ি পরতে না পারাটা লজ্জার’

শাড়ি পরতে হবে! একথাটা শুনলেই আজকাল অনেক মেয়েরাই আঁতকে ওঠেন। কোনও বিশেষ অনুষ্ঠান ছাড়া শাড়ি পরতে আজকাল কোনও মেয়েকেই দেখা যায়না। অথচ শাড়ি ভারতীয় সংস্কৃতির সঙ্গে ওতপ্রোত ভাবে জড়িত। এ সংক্রান্ত একটি খবর প্রকাশ করেছে ভারতের জিনিউজ পত্রিকা।

আর এবিষয়ে বাঙালি ফ্যাশন ডিজাইনার কী বললেন?

সব্যসাচী বলেন, 'একজন ভারতীয় নারী হয়ে যদি তুমি আমার কাছে এসে বল যে, আমি শাড়ি পরতে পারি না। তাহলে আমি বলব তোমার লজ্জা হওয়া উচিত।’

হ্যাঁ, সম্প্রতি হাভার্ড ইন্ডিয়া কনফারেন্সে বক্তব্য রাখতে গিয়ে এ কথাই বলেন, বাঙালি ফ্যাশন ডিজাইনার। আর তার এই মন্তব্যের সমর্থনে সরব হন কনফারেন্সে উপস্থিত সমস্ত শ্রোতারা। কনফারেন্সের আজকের প্রজন্মে ধুতি না পরতে পারার সঙ্গে শাড়ি পরার বিষয়টিও তোলেন নিউইয়র্কের ভারতীয় রাষ্ট্রদূত সন্দিপ চক্রবর্তী। তার কথার উত্তরেই এই জবাব দেব সব্যসাচী।

সব্যসাচী বলেন, ‘শাড়ি পৃথিবীর অন্যতম সেরা পোশাক। আমি ব্যক্তিগত ভাবে শাড়ি ভীষণ পছন্দ করি।’ প্রসঙ্গক্রমে দীপিকা পাড়ুকোনের উদাহরণ দেন সব্যসাচী মুখোপাধ্যায়। তিনি বলেন, 'দীপিকাকেই দেখুন, ও তো যেকোনও অনুষ্ঠানেই শাড়ি পরেই যায়।'

তিনি আর জানান, যখন দেখি কোনও ভারতীয় নারী নিজের শিকড়টাই ভুলে যাচ্ছে তখন খারাপ লাগে। তবে সব্যসাচী অবশ্য একথা মেনে নেন মেয়েরা এখনও বিশেষ অনুষ্ঠানে শাড়ি পরলেও, ছেলেরাতো ধুতি পরেনই না। শাড়ি ও ধুতির ঐতিহ্য ও সৌন্দর্যকে তুলে ধরতেই তিনি তার ফ্যাশন ব্র্যান্ডকে লঞ্চ করেছেন।

জিজাক/