‘যেখানে নদীভাঙন, সেখানেই তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা’

ঢাকা, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

‘যেখানে নদীভাঙন, সেখানেই তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা’

ঝালকাঠি প্রতিনিধি ৮:৫৮ অপরাহ্ণ, জুন ২১, ২০১৯

‘যেখানে নদীভাঙন, সেখানেই তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা’

নদীভাঙন রোধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে জানিয়ে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক বলেন, পাঁচ মাসে ৩৭টি উপজেলার ৯৭টি নদীভাঙনের স্থান পরিদর্শন করা হয়েছে। যেখানেই ভাঙন দেখা হচ্ছে, তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। নদীভাঙন নিয়ে কারো চিন্তা করতে হবে না, যেটা প্রয়োজন সরকার তা করে দেবে।

শুক্রবার সকালে ঝালকাঠির নদীভাঙন ও খাল খনন কার্যক্রমের পরিদর্শন শেষে সার্কিট হাউসে আয়োজিত এক সমাবেশে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী বলেন, যখন নদীভাঙনে নিস্ব ব্যক্তিরা ঢাকায় রিকশা চালায়, তাদের দেখে খুব দুঃখ লাগে। অনেক স্বাবলম্বী পরিবার নদীভাঙনের কবলে পড়ে সর্বস্ব হারিয়েছে। তাই নদীভাঙন রোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সরকার মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এসব এলাকায় কাজ শুরু হচ্ছে।

খাল খননের কাজে কোথাও অনিয়ম পেলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে জানিয়ে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী বলেন, কৃষকের সুবিধার্থে খাল খনন প্রয়োজন। দেশের মানুষ যাতে সব মৌসুমে পানি পায় সেজন্য খাল খনন করা হচ্ছে। তাই যেসব এলাকায় খাল খননের কাজ চলছে, তা সঠিকভাবে করতে হবে।

এসময় প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন পানিউন্নয়ন বোর্ডের দক্ষিণাঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলী মো. জুলফিকার হাওলাদার, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. শফী উদ্দিন, ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার শাখার উপ-পরিচালক দেলোয়ার হোসেন মাতুব্বর, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) এমএম মাহামুদ হাসান, ঝালকাঠি পানিউন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী এসএম আতাউর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খান আরিফুর রহমান ও আওয়ামী লীগ নেতা রুহুল আমীন রিজভী।

এইচআর

 

বরিশাল: আরও পড়ুন

আরও