বরিশাল সিটি নির্বাচনে জমে উঠেছে প্রচারণা

ঢাকা, রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৮ আশ্বিন ১৪২৫

বরিশাল সিটি নির্বাচনে জমে উঠেছে প্রচারণা

বরিশাল ব্যুরো ১০:১৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ১২, ২০১৮

বরিশাল সিটি নির্বাচনে জমে উঠেছে প্রচারণা

বরিশাল সিটি নির্বাচনে প্রচার-প্রচারণা জমে উঠেছে। আনুষ্ঠানিক প্রচারণার দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবার সকাল থেকে মেয়র ও কাউন্সিল প্রার্থীরা গণসংযোগ করেছেন।

এদিকে নির্বাচনী বিধি লঙ্ঘন এবং লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নেই বলে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে বিএনপির মেয়র প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার অভিযোগ করেছেন।

তিনি বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় নগরীর নাজিরেরপুল থেকে বাকলা হয়ে পেয়াজপট্রি এলাকায় লিফলেট বিতরণ করেন। এ সময় দোকানদার ও পথচারীদের কাছে ধানের শীষ প্রতীকে ভোট চান মজিবর রহমান সরোয়ার।

এ সময় তার সঙ্গে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন চৌধুরীসহ জেলা ও মহানগরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে, বেলা ১১টার দিকে অশ্বিনী কুমার হল চত্বর থেকে অওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ তার নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন। এ সময় সদর রোডসহ বিভিন্ন ওয়ার্ডে সংযোগ করেন তিনি।

তার সঙ্গে সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি শাহ আলম ও বলরাম পোদ্দার গণসংযোগে অংশ নেন।

বিএনপির মেয়র প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচন আচরণবিধি সংক্রান্ত মনিটরিং উপ-কমিটির সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট নাজিম উদ্দিন পান্না রিটার্নিং কার্যালয়ে একটি অভিযোগপত্র দিয়েছেন।

এতে বলা হয়েছে, গত ১০ জুলাই রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে প্রতীক বরাদ্দের পর দুপুরে নৌকা প্রতীকের সমর্থনে আইনজীবীদের একটি মিছিল সদররোডে প্রদক্ষিণ করে। এছাড়া সন্ধ্যা থেকে রাত সাড়ে আটটা নগাদ সিটি করপোরেশন এলাকার ২১টি ওয়ার্ডে নৌকা প্রতীকের সমর্থনে শেভাযাত্রা বের করা হয়, যা নির্বাচনী আচরণ বিধির লঙ্ঘন।

বিষয়গুলো তদন্ত সাপেক্ষে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার জন্য রিটার্নিং অফিসারের কাছে আবেদন করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী।

তবে বিএনপির অভিযোগ বিষয়ে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ বলেন, ‘নির্বাচন নিয়ে ভোটারদের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়াতেই বিএনপি অপপ্রচার চালাচ্ছে।’

সিটি নির্বাচনের সহ-রিটার্নিং অফিসার মো. হেলাল উদ্দিন পরিবর্তন ডটকমকে জানান, বিএনপির আবেদন পুলিশ প্রশাসনকে দেয়া হয়েছে। তারা সরজমিনে খোঁজ নিয়ে রিটার্নিং অফিসারকে জানাবেন। পরে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এএমজেইউ/আইএম