অগ্রণী ব্যাংকের ৩৫৭ কোটি টাকার ক্ষতির সন্ধান

ঢাকা, বুধবার, ১৫ আগস্ট ২০১৮ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫

অগ্রণী ব্যাংকের ৩৫৭ কোটি টাকার ক্ষতির সন্ধান

জ্যেষ্ঠ প্রতবেদক ৮:১০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৬, ২০১৮

print
অগ্রণী ব্যাংকের ৩৫৭ কোটি টাকার ক্ষতির সন্ধান

রাষ্ট্রায়ত্ব অগ্রণী ব্যাংকের বিভিন্ন অনিয়মে মোট ৩৫৭ কোটি ৩৪ লাখ ৭৬ হাজার ৫৯৫  টাকার অডিট আপত্তি পেয়েছে সংসদীয় কমিটি। মঙ্গলবার  সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত ‘সরকারি  হিসাব সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ৭৬তম বৈঠকে  এনিয়ে আলোচনা হয়।

কমিটির সভাপতি ড. মহীউদ্দিন খান আলমগীরের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটি সদস্য একেএম মাইদুল ইসলাম, মো. আব্দুস শহীদ, মো. মোসলেম উদ্দীন, পঞ্চানন বিশ্বাস, মো. রুস্তম আলী ফরাজী, মো. শামসুল হক টুকু অংশ নেন।

বৈঠকে অর্থ মন্ত্রনালয় এর নিয়ন্ত্রণাধীন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের অধীনস্ত অগ্রণী ব্যাংক লিঃ এর ২০১০-২০১১ অর্থবছরের হিসাব সম্পর্কিত মহাহিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রকের বার্ষিক রিপোর্ট ২০১১-২০১২ এ অন্তর্ভূক্ত সর্বমোট ১০টি অডিট আপত্তির উপর আলোচনা করা হয়।

বৈঠকে জানানো হয়, ২০১০-২০১১ অর্থবছরে বিভিন্ন কোম্পানিকে প্রদত্ত ঋণের বিপরীতে  অপর্যাপ্ত ডাউন পেমেন্টের ভিত্তিতে বারংবার পূনঃতফসিল সুবিধা দিয়েও টাকা আদায়ে ব্যর্থতায় শ্রেণিবিন্যাসিত ঋণ, ঋণ নীতিমালার শর্ত ভঙ্গ করে পূনঃতফসিল করা ও শর্ত মোতাবেক টাকা আদায় না করা, জামানতবিহীন দীর্ঘদিন আগের এলটিআর ঋণের টাকা আদায় না করা, স্বল্প সময়ে ঋণসীমা দ্বিগুণ বৃদ্ধি করাসহ নানা অনিয়মের কারনে অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেডের মোট ৩৫৭ কোটি ৩৪ লাখ ৭৬ হাজার ৫৯৫ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

নীতিমালা ভঙ্গ করে ঋণদান এবং ঋণ আদায়ে ব্যর্থতার এ সমস্ত অনিয়মের সাথে জড়িত কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয়/প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করে আপত্তিকৃত টাকা আদায়ের সর্বশেষ অবস্থা জানানোর জন্য মন্ত্রণালয়কে ক্ষেত্রবিশেষে ৭, ৩০, ৪৫, ও ৬০ দিন সময় দেওয়ার সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব, বাংলাদেশে ব্যাংকের গভর্ণর, মহাহিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রকসহ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এইচকে/এএসটি

 
.


আলোচিত সংবাদ