৫০০ কোটি টাকা ছাড়ালো ডিএসইর লেনদেন

ঢাকা, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

৫০০ কোটি টাকা ছাড়ালো ডিএসইর লেনদেন

পরিবর্তন প্রতিবদেক ৫:৩৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০১৯

৫০০ কোটি টাকা ছাড়ালো ডিএসইর লেনদেন

ঈদের পর থেকে ক্রম ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় রয়েছে পুঁজিবাজারের লেনদেন। ঈদ পরবর্তী প্রথম কার্যদিবসে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৩২৩ কোটি ৭০ লাখ টাকা লেনদেন হলেও বুধবার তা ৫৪২ কোটি ৫৫ লাখ টাকায় স্থিতি পেয়েছে।

পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, জুন ক্লোজিং হওয়া কোম্পানিগুলো ডিভিডেন্ড ঘোষণার অপেক্ষায় রয়েছে। তাই বাজারের বিদ্যুৎ ও জ্বালানি, বস্ত্র, ওষুধ ও রসায়ন, প্রকৌশল খাতের শেয়ার ক্রয়ে বিনিয়োগকারীদের সক্রিয়তা দেখা যাচ্ছে।

তারা বলেন, বাজারের লেনদেনের ক্রম উন্নতি দেখা বুঝা যাচ্ছে বিনিয়োগকারীরা শেয়ার ক্রয় করছে। কিন্তু স্বল্পমূলধনী ও লোকসানি কোম্পানিগুলোর শেয়ার দরের উত্থান ভীতির কারণ হতে পারে।

সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে বুধবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সার্বিক মূল্যসূচক ৪.০৮ পয়েন্ট কমেছে। এদিন ডিএসইতে লেনদেন হওয়া সিংহভাগ কোম্পানি ও ফান্ডের দর কমেছে।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ মূল্যসূচক ৩.৪০ পয়েন্ট কমেছে। দিনশেষে সিএসইতে ২১ কোটি ২১ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। ডিএসই ও সিএসই’র বাজার পর্যালোচনায় এ তথ্য জানা গেছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, বুধবার ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৫৪টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ১২৩টির, কমেছে ১৯৪টির এবং দর অপরিবর্তিত ছিল ৩৭টি প্রতিষ্ঠানের। এসময় ডিএসইতে ১৫ কোটি ৬৭ লাখ ৮১ হাজার ৩৩৮টি শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

এসময়, ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ৪.০৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ২২৩ পয়েন্টে। অপরদিকে, শরিয়াহ সূচক ডিএসইএস ০.২৫ ও ডিএস-৩০ সূচক ৩.৮৭ পয়েন্ট কমে যথাক্রমে ১ হাজার ২০৪ পয়েন্ট ও ১ হাজার ৮৪১ পয়েন্টে স্থিতি পেয়েছে।

দিনশেষে ডিএসইতে ৫৪২ কোটি ৫৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৪৭২ কোটি ৯৪ লাখ টাকার। অর্থাৎ এদিন ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে প্রায় ৭০ কোটি টাকা।

দিনশেষে ডিএসইতে টার্নওভার তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে ইউনাইটেড পাওয়ার। এদিন কোম্পানিটির ৬৭ কোটি ৮৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে ছিল ওরিয়ন ইনফিউশন, কোম্পানিটির ২৩ কোটি ৩৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে এবং ২১ কোটি ৪৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে উঠে আসে ফরচুন সুজ।

ডিএসইর টার্নওভার তালিকায় থাকা অন্যান্য কোম্পানিগুলো হলো- জেএমআই সিরিঞ্জ, বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন, মুন্নু সিরামিক, বিকন ফার্মা, খুলনা পাওয়ার, সিলকো ফার্মা ও আল-হাজ টেক্সটাইল।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ সূচক সিএসসিএক্স এদিন ৩.৪০ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৬৯৯ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৫৯টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১০৭টির, কমেছে ১২১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩১টির দর। দিনশেষে সিএসইতে ২২ কোটি ২১ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

জেডএস/এসবি

 

শেয়ারবাজার: আরও পড়ুন

আরও