‘খেলাপি ঋণ আদায়ে আইনে পরিবর্তন আসছে’

ঢাকা, রবিবার, ১৬ জুন ২০১৯ | ২ আষাঢ় ১৪২৬

‘খেলাপি ঋণ আদায়ে আইনে পরিবর্তন আসছে’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ৬:০৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ০৯, ২০১৯

‘খেলাপি ঋণ আদায়ে আইনে পরিবর্তন আসছে’

খেলাপি ঋণ আদায়ে ব্যাংকিং কোম্পানি আইনের সংশোধন করে প্রয়োজনীয় পরিবর্তন করা হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

বুধবার অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি এ কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ব্যাংকিং খাত আমাদের কাছে অন্যান্য খাতের চাইতে বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে। কারণ এ খাতে কিছু সমস্যা আছে। আমরা সমস্যা মোকাবেলা করে সামনে এগিয়ে যেতে চাই।

তিনি বলেন, ব্যাংকিং কোম্পানি আইনে কিছু ক্রুটি বিচ্যুতি আছে। আইনের অভাব আছে। আবার কিছু আইনের কারণে অন্য আইন বাস্তবায়ন করা যায় না। এই কারণে খেলাপি ঋণ আদায় হয় না। এইসব আইন সংশোধন করা হবে। ১৯৭২ সালের ব্যাংকিং কোম্পানি আইনে ফিরে গিয়ে এই সংশোধনী আনা হবে। যাতে করে কোনো ঋণ খেলাপিই আইনের ফাঁক গলে বেরিয়ে না যেতে পারে।

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, প্রাইভেট, পাবলিক যে ব্যাংকের টাকাই বেহাত হোক তা চাই না। কারণ এই টাকা জনগণের। জনগণের টাকা বেহাত হতে দিব না।

তিনি বলেন, ঋণের টাকা ফেরত দিতে হবে। এই নিশ্চয়তা তৈরি করতে হবে। এই জন্য কিছু কিছু জায়গায় আইনে হাত দিতে হবে। বিধির পরিবর্তন করতে হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, কি কারণে, কার কারণে টাকা ঋণ নেওয়া টাকা পাচ্ছি না, তা খুঁজে বের করা হবে। সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীরা কেউ ঋণ খেলাপিদের সহযোগিতা করছে কিনা তাও খুঁজে বের করা হবে। কারো সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, কারো বিরুদ্ধেই অত্যন্ত কঠোর হবো না। সমস্ত কর্মকাণ্ডই হবে টাকা উদ্ধারের জন্য।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগে জনবল সংটক আছে। সংকট দূর করতে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, কর্মকর্তাদের দক্ষ করে গড়ে তুলতে ট্রেনিং ইনস্টিটিউশনকে শক্তিশালী করা হবে।

এফএ/এসবি