ভানুয়াতুতে আটকে পড়ে আছেন ১০৩ জন বাংলাদেশি

ঢাকা, ১৮ মার্চ, ২০১৯ | 2 0 1

ভানুয়াতুতে আটকে পড়ে আছেন ১০৩ জন বাংলাদেশি

পরিবর্তন ডেস্ক ১:৫৬ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ০৯, ২০১৯

ভানুয়াতুতে আটকে পড়ে আছেন ১০৩ জন বাংলাদেশি

ছবি: এবিসি

প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দ্বীপরাষ্ট্র ভানুয়াতু। একটি সংঘবদ্ধ পাচার চক্রের কবলে পড়ে সেখানে ১০৩ জন বাংলাদেশি আটকা পড়েছেন বলে খবর দিয়েছে মার্কিন গণমাধ্যম ভয়েস অব আমেরিকা।

সংবাদ মাধ্যমটি বলছে, দালাল চক্রের প্রতারণার শিকার হয়ে তারা দেশ ছেড়েছিলেন নতুন এক স্বপ্ন নিয়ে। দালালরা বলেছিল, ভানুয়াতু পৌঁছাতে পারলেই সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। কারণ কাছেই অস্ট্রেলিয়া। যে করেই হোক অস্ট্রেলিয়া পাড়ি দেয়া সম্ভব।

শুধু তাই নয়, দালালরা বলেছিল, ভানুয়াতু পৌঁছা মাত্রই তাদেরকে বিজনেস কার্ড দেয়া হবে। যে কার্ড পেলে তাদের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়ে যাবে। কিন্তু ভানুয়াতু পৌঁছার পর এই বাংলাদেশিরা বুঝতে পারেন এসব ভুয়া।

মার্কিন গণমাধ্যমটির খবরে বলা হয়েছে, এখন তাদেরকে আদালতে দৌড়াতে হচ্ছে। টাকা নেই, পয়সা নেই। নেই কোনো কাজ। আদালতে যাবার পয়সাও নেই। অস্ট্রেলিয়ার সংবাদ মাধ্যম ওই বাংলাদেশিদের করুণ চিত্র তুলে ধরেছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২ লাখ ৬৬ হাজার মানুষের দেশ ভানুয়াতু। ১৯৮০ সালের ৩০ শে জুলাই দেশটি স্বাধীন হয়।

অস্ট্রেলিয়ার সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়েছে, প্রিন্স নামে একটি কোম্পানির মালিক এসব মানুষদের প্রলুব্ধ করে ভানুয়াতু নিয়ে গেছেন।

পাচার হওয়া যুবকদের একজন শাহিন খান। তিনি বলেন,  প্রিন্স হলো ভানুয়াতুর রাজধানী পোর্ট ভিলার একটি আসবাবপত্রের স্টোর। পাচারের আগে তাদেরকে বলা হয়েছিল, ভানুয়াতু পৌঁছার পর পরই তারা ব্যবসা করতে পারবে। চারজন বাংলাদেশি তাদেরকে স্বপ্ন দেখিয়েছিল। গত নভেম্বরে তাদেরকে ভানুয়াতু পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। বলা হচ্ছে, প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে এটাই সবচেয়ে বড় মানব পাচারের ঘটনা।

এদিকে, ভানুয়াতুর আদালতে দ্বিতীয় দফায় তিন সপ্তাহের জন্য মামলাটি মুলতবি করা হয়েছে। বাংলাদেশ তাদেরকে দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার সহায়তা চেয়েছে বলেও উল্লেখ করেছে ভয়েস অব আমেরিকা।

আরপি

 

অস্ট্রেলিয়া: আরও পড়ুন

আরও