মসজিদে হামলার পর মুসলিম বিদ্বেষী মন্তব্য করায় তিরস্কৃত সেই সেনেটর

ঢাকা, ১৮ মার্চ, ২০১৯ | 2 0 1

মসজিদে হামলার পর মুসলিম বিদ্বেষী মন্তব্য করায় তিরস্কৃত সেই সেনেটর

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:০৩ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ০৩, ২০১৯

মসজিদে হামলার পর মুসলিম বিদ্বেষী মন্তব্য করায় তিরস্কৃত সেই সেনেটর

নিউজিল্যান্ডের মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার জন্য মুসলিম অভিবাসনকেই দায়ী করে তীব্র সমালোচনার সম্মুখীন হয়েছিলেন অস্ট্রেলীয় সেনেটর ফ্রেজার অ্যানিং। এবার তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে ভর্ত্সনা করল অস্ট্রেলিয়ার সেনেট।

গত মাসে দু’টি মসজিদে গুলিবর্ষণ করে অস্ট্রেলীয় নাগরিক ব্রেন্টন টারান্ট ৫০ জনকে হত্যার দিনই চরম ডানপন্থী অ্যানিং ওই মন্তব্য করেন।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি জানায়, বুধবার অস্ট্রেলিয়ার সব দলের জনপ্রতিনিধিরা অ্যানিংয়ের ‘উত্তেজক ও বিভেদ সৃষ্টিকারী’ মন্তব্যের নিন্দা জানিয়েছে।

অ্যানিং এই তিরস্কারকে ‘বাক স্বাধীনতার ওপর আক্রমণ’ হিসেবে অভিহিত করেছেন।

আনুষ্ঠানিক এই ভর্ত্সনায় বলা হয়, অ্যানিংয়ের বক্তব্যে পার্লামেন্ট বা অস্ট্রেলিয়ার মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি প্রতিফলিত হয়নি।

অ্যানিং বলেছিলেন, ‘আজকে নিউজিল্যান্ডের রাস্তায় রক্তপাতের আসল কারণ হচ্ছে দেশটির ইমিগ্রেশন প্রোগ্রাম যেটা গোঁড়া মুসলিমদের নিউজিল্যান্ডে অভিবাসন করতে দিয়েছে।’

সেনেটে অন্য জনপ্রতিনিধিরা বলেন, অ্যানিংয়ের মন্তব্য ‘লজ্জাকর’ ও ‘আতঙ্কজনক’।

তিরস্কারে বলা হয়, অ্যানিং ভয়াবহ অপরাধের শিকার মানুষদের ওপরই ওই অপকর্মের দায় চাপাতে চেয়েছেন এবং ধর্মের ভিত্তিতে তাদের দুর্নাম রটানোর চেষ্টা করেছেন।

কোনও শাস্তির ব্যবস্থা না থাকলেও এই তিরস্কারকে আনুষ্ঠানিক নিন্দা হিসেবে বিবেচনা করা হয়। গত এক এক দশকে পাঁচ বার এরকম নিন্দা জ্ঞাপনের প্রস্তাব পাশ হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার সেনেটে।

বুধবার কেবল একজন সেনেটর - করি বার্নার্ড এই প্রস্তাবের বিপক্ষে ভোট দেন, ভোট দানে বিরত থাকেন অ্যানিংসহ তিন জন।

এমআর/এএসটি

 

অস্ট্রেলিয়া: আরও পড়ুন

আরও