জুম্মার নামাজ সম্প্রচারের ঘোষণা নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯ | ১২ বৈশাখ ১৪২৬

জুম্মার নামাজ সম্প্রচারের ঘোষণা নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর

পরিবর্তন ডেস্ক ৫:০৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ২০, ২০১৯

জুম্মার নামাজ সম্প্রচারের ঘোষণা নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন জানিয়েছেন আগামী শুক্রবারের জুম্মার নামাজ সারা দেশজুড়ে সম্প্রচার করা হবে এবং দুই মিনিট নীরবতা পালন করা হবে।

গত শুক্রবার মসজিদে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে এক বন্দুকধারী ৫০ জন মুসলিমকে হত্যার পর তিনি এই ঘোষণা দেন।

‘শুক্রবার যখন তারা মসজিদে ফিরে যাবে তখন মুসলিম জনগোষ্ঠীর প্রতি সমর্থন দেখানোর একটা ইচ্ছা রয়েছে’ বলেন আরডার্ন।

গুলিবর্ষণে ক্ষতিগ্রস্ত আল নুর মসজিদ শুক্রবারের নামাজের সংস্কার করা হচ্ছে বলে বুধবার জানায় বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

কাতারের সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরা জানায়, অন্তত পাঁচজন নিহতকে বুধবার মেমোরিয়াল পার্ক সেমিটারিতে দাফন করা হয়েছে।

মসজিদের সামনে কয়েকটি গোষ্ঠী বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করেছে এবং সূর্যাস্তের সময় নিউজিল্যান্ডের জাতীয় সঙ্গীত গায় সমবেত মানুষ।

অস্ট্রেলিয়ান ন্যাশনাল ইমামস কাউন্সিল শুক্রবারের খুতবা ক্রাইস্টচার্চের মসজিদগুলোতে নিহতদের প্রতি উৎসর্গ করার আহ্বান জানিয়েছে ইমামদের প্রতি।

‘বিশ্বের যেকোনো জায়গায় যেকোনো মুসলিম বা যেকোনো নিরপরাধ ব্যক্তির ওপর হামলা সব মুসলিম ও সব মানুষের ওপর হামলা,’ এক বিবৃতে বলে কাউন্সিল।

মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার পর অস্ট্রেলীয় নাগরিক ব্রেন্টন টারান্ট (২৮) নামের এক শ্বেতাঙ্গ আধিপদ্যবাদিকে হত্যার দায়ে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

নিউজিল্যান্ডের প্রধান পুলিশ কর্মকর্তা জানান যুক্তরাষ্ট্রের এফবিআই এবং অস্ট্রেলিয়া, কানাডা ও ব্রিটেনের সংস্থাগুলোসহ বিশ্বের বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা অভিযুক্তের বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করছে।

‘আমি নিশ্চিত করছি এটা সম্পূর্ণভাবে একটা  আন্তর্জাতিক তদন্ত,’ ওয়েলিংটনে সাংবাদিকদের বলেন পুলিশ কমিশনার মাইক বুশ।

হামলার পর নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী দেশটিতে কঠোর আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইন চালু করার ঘোষণা দিয়েছেন।

মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত ২১ জন নিহতকে শনাক্ত করা হয়েছে। বাকিদের মৃতদেহও বুধবারের মধ্যে শনাক্ত করে তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে দাফনের জন্য।

ইসলামি রীতি অনুযায়ী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নিহতদের দাফন করতে না পারায় নিহতদের স্বজনরা হতাশ বলে জানানো হয় খবরে।

বুশ জানান, হত্যা মামলার বিচারককে মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত করতে হয় এবং এই প্রক্রিয়া নিখুঁত করতেই সময় লাগছে।

হামলায় আহতদের মধ্যে ২৯ জন হাসপাতালে রয়েছেন। তাদের মধ্যে জন মধ্যে আটজন নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছেন।

গুলির জটিল ক্ষতের কারণে অনেকের ওপরেই একাধিকবার অস্ত্রোপচার করা হয়েছে।

এমআর/এএসটি