অস্ট্রেলিয়ায় তীব্র দাবদাহে ৯০টি বন্য ঘোড়ার মৃত্যু

ঢাকা, ২০ মার্চ, ২০১৯ | 2 0 1

অস্ট্রেলিয়ায় তীব্র দাবদাহে ৯০টি বন্য ঘোড়ার মৃত্যু

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:১৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৪, ২০১৯

অস্ট্রেলিয়ায় তীব্র দাবদাহে ৯০টি বন্য ঘোড়ার মৃত্যু

অস্ট্রেলিয়ায় এই মুহূর্তে রেকর্ড পরিমাণ তাপমাত্রা বিরাজ করছে। আর তীব্র এই দাবদাহে দেশটির প্রত্যন্ত অঞ্চল অ্যালিস স্প্রিংসে অন্তত ৯০টি বন্যঘোড়ার মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া অন্যান্য প্রাণীও হুমকির মুখে রয়েছে।

কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে বিবিসি বলছে, গত সপ্তাহে অশ্বারোহী সেনারা দেশটির উত্তরাঞ্চলের একটি শুকনো জলাশয় থেকে ওই মৃত বন্যঘোড়াগুলো উদ্ধার করে।

অস্ট্রেলিয়ায় গত ১৫ দিন থেকে চরম তাপদাহ বিরাজ করছে। বৃহস্পতিবার অ্যাডিলেড শহরে দেশের সবচেয়ে ৪৬ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। যা ১৯৩৯ সালের পর রেকর্ড তাপমাত্রা।

স্থানীয় সেন্ট্রাল ল্যান্ড কাউন্সিলের (সিএসসি) দেওয়া খবরের ভিত্তিতে সেনারা ওই অঞ্চলে অভিযান চালিয়ে ঘোড়াগুলো উদ্ধার করে। আর ঘোড়াগুলোকে কয়েকদিন না দেখতে পাওয়ায় স্থানীয়রা খোঁজ নিয়ে দেখতে পায়, একটি শুকনো জলাশয়ে সেগুলো মরে পড়ে আছে।

স্থানীয় বাসিন্দা রাল্ফ টার্নার ঘটনাস্থলে গিয়ে কিছু ছবি তুল তা অনলাইনে পোস্ট করেন। তিনি ওই ঘটনার দৃশ্যকে ‘হত্যাযজ্ঞ’ হিসেবে বর্ণনা করেন।

বিবিসিকে তিনি বলেন, ‘আমি পুরো বিধ্বস্ত হয়ে গেছি। আমি আমার জীবনে এ রকম ঘটনা কখনও দেখিনি।’

স্থানীয়রা বলছেন, তারা মুমূর্ষু অবস্থায় কিছু ঘোড়া উদ্ধার করেছেন। তারা আরো অন্তত ১২০টি বিপন্ন ঘোড়া, গাধা ও উট উদ্ধারের পরিকল্পনা করছেন বলে জানিয়েছেন।

শুধু বন্য জন্তু-জানোয়ার এই তাপদাহের ঝুঁকিতে রয়েছে তা নয়, বরং নিউ সাউথ ওয়েলসে স্থানীয় ইঁদুরের ব্যাপক মৃত্যুর খবর বেরিয়েছে। এ ছাড়া খরাপ্রবণ এলাকার নদীতে ১০ লাখের বেশি মরা মাছ ভেসে উঠেছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

অস্ট্রেলিয়ার আবহাওয়া বিভাগ বলছে, অ্যালিস স্প্রিংসে গত দুই সপ্তাহ ধরে তাপমাত্রা ৪২ ডিগ্রি সেলিয়াসের ওপরে রয়েছে। স্বাভাবিকভাবে জানুয়ারি মাসে সেখানে যে তাপমাত্রা থাকে এটি তার চেয়ে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি।

এদিকে, চলমান পরিস্থিতিতে দেশটির কর্তৃপক্ষ জনগণকে নিরাপদ স্থানে থাকার এবং কায়িক পরিশ্রম কমিয়ে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। বিশেষ করে, বয়স্ক, শিশু ও যারা দীর্ঘ অসুখে ভুগছেন তাদের ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে।

আরপি

 

অস্ট্রেলিয়া: আরও পড়ুন

আরও