মিয়ানমার এখনও রোহিঙ্গা মুসলমানদের জন্য নিরাপদ নয়: জাতিসংঘ

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

মিয়ানমার এখনও রোহিঙ্গা মুসলমানদের জন্য নিরাপদ নয়: জাতিসংঘ

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:৫১ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ০৬, ২০১৯

মিয়ানমার এখনও রোহিঙ্গা মুসলমানদের জন্য নিরাপদ নয়: জাতিসংঘ

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের জন্য মিয়ানমার এখনও নিরাপদ নয় বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘের বিশেষ দূত ও তদন্তকারী ইয়াং হি লি। কারণ নিজ মাতৃভূমিতে নির্যাতনের শিকার হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা মুসলমানদের প্রত্যাবাসনের উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টিতে ব্যর্থ হয়েছে মিয়ানমার সরকার।

সেখানে থেকে যাওয়া রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর এখনও নির্যাতন-নিপীড়ন চলছে। শুক্রবার জাতিসংঘের সাধারণ সভায় উপস্থাপিত এক প্রতিবেদনে তিনি জানিয়েছেন, মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলের রাখাইন রাজ্যে এখনও যেসব রোহিঙ্গা মুসলমান রয়েছেন তাদের জন্যও পরিস্থিতি এখনও ভয়াবহ রয়ে গেছে।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গারা তাদের গ্রাম ছেড়ে চলে গিয়েও ভালোভাবে জীবনযাপন করতে পারছে না। তাদেরকে মানবিক সহায়তার ওপর নির্ভরশীল থাকতে হচ্ছে। তাদের বেঁচে থাকার জন্য যেসব মৌলিক উপকরণ প্রয়োজন সেগুলোও ব্যাপকভাবে হ্রাস পাচ্ছে।

পার্সটুডে বলছে, জাতিসংঘের বিশেষ দূত লি আরও জানান, এই পরিস্থিতি অব্যাহত থাকলে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মিয়ানমারে ফিরে যাওয়া নিরাপদ বা টেকসই হবে না।

তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, এ ছাড়া রোহিঙ্গাদের গ্রামে চালানো পরিবার-গণনা প্রক্রিয়ায় প্রশাসনিক রেকর্ড থেকে রোহিঙ্গাদের মুছে ফেলার চেষ্টা করা হচ্ছে, যাতে তাদের প্রত্যাবর্তনের সম্ভাবনা আরও হ্রাস পায়। সরকারের শরণার্থী প্রত্যাবর্তনের ক্ষেত্রে জাতীয় শনাক্তকরণ কার্ড দেয়ার কথা বলা হয়েছে, কিন্তু তাতে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব পাওয়ার বিষয়টি সমাধান হবে না।

২০১৭ সালে আগস্ট মাসে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী সাঁড়াশি অভিযান শুরু করলে ৭ লাখের বেশি রোহিঙ্গা সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। জাতিগত নির্মূলকরণ এ অভিযানে রোহিঙ্গাদের ওপর ব্যাপক গণহত্যা, গণধর্ষণ, লুণ্ঠন ও তাদের বাড়িঘর পুড়িয়ে ফেলা হয়।

আরপি

 

এশিয়া: আরও পড়ুন

আরও