ড. জাকির ‘অনাহূত অতিথি’ হলেও পাঠানো যাচ্ছে না: মাহাথির

ঢাকা, ১ আগস্ট, ২০১৯ | 2 0 1

ড. জাকির ‘অনাহূত অতিথি’ হলেও পাঠানো যাচ্ছে না: মাহাথির

পরিবর্তন ডেস্ক ১:৫৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ০১, ২০১৯

ড. জাকির ‘অনাহূত অতিথি’ হলেও পাঠানো যাচ্ছে না: মাহাথির

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ বলেছেন, ড. জাকির নায়েক মালয়েশিয়ায় ‘অনাহূত অতিথি’ এবং তার বক্তব্যও ‘কট্টর’। কিন্তু তার পরও মালয়েশিয়া তাকে হস্তান্তর বা অন্য কোথাও পাঠাতে পারছে না। অন্য কোনো দেশ জাকির নায়েককে নিতে চায় না বলেই তাকে রাখতে হচ্ছে।

তুর্কি গণমাধ্যম টিআরটি ওয়ার্ল্ডকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ৯৪ বছর বয়সী মাহাথির এসব কথা বলেন বলে খবর দিয়েছে স্টার অনলাইন।

ড. মাহাথির বলেন, ‘জাকির নায়েকের কট্টর দর্শন আমাদের দেশের মতো বিভিন্ন ধর্ম ও সম্প্রদায়ভিত্তিক সমাজের জন্য হুমকি। কিন্তু তাকে ‘বহিষ্কার’ করাও সম্ভব হচ্ছে না। কারণ অন্য কোনো দেশ তাকে নিতে চায় না।’

উল্লেখ্য, ভারতের আদালতে অর্থপাচার ও ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর মধ্য দিয়ে জিহাদি কার্যক্রম উদ্বুদ্ধ করার অভিযোগ রয়েছে ড. জাকিরের বিরুদ্ধে। দিল্লির পক্ষ থেকে তাকে ফেরত পাঠানোর আনুষ্ঠানিক আবেদন করা হলে ২০১৮ সালে মাহাথির এ ব্যাপারে অনিচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন।

এ বছর জুনে মালয়েশীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, ন্যায়বিচার ক্ষুণ্ন হওয়ার আশঙ্কা থাকলে জাকির নায়েককে ভারতে ফেরত পাঠানো হবে না।

তবে তুর্কি গণমাধ্যমটিকে মাহাথির বলেন, ‘মালয়েশিয়ায় ভিন্ন ভিন্ন বর্ণ ও ধর্মের মানুষ আছে। আমরা এমন কাউকে চাই না, যার বর্ণগত সম্পর্ক ও অন্য ধর্ম সম্পর্কে কট্টর চিন্তা-ভাবনা রয়েছে। তবে জাকির নায়েককে আবার অন্য কোথাও পাঠানো কঠিন। কারণ অনেক দেশই তাকে রাখতে চায় না।’

তিনি জানান, আন্তর্জাতিক পুলিশি সংস্থা ইন্টারপোল জাকির নায়েকের জন্য রেড নোটিশ জারি করতেও রাজি হয়নি।

ভারতের গোয়েন্দারা তার ‍বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ আনার পর থেকেই মালয়েশিয়ায় বসবাস করছেন ড. জাকির নায়েক। বিগত নাজিব রাজাকের নেতৃত্বাধীন মালয়েশিয়ার সরকার তাকে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ দেয়।

এ বছর মে মাসে ভারতের আর্থিক অনিয়ম বিষয়ক পর্যবেক্ষক দফতর এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে ১৯৩ কোটি রুপি মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগ আনে। এ ছাড়া বিশ্বজুড়ে অবৈধ সম্পদ গড়ে তোলারও অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

স্টার অনলাইন বলছে, গত মঙ্গলবার ৫৩ বছর বয়সী ধর্মপ্রচারক জাকির নায়েক ভারতের আনা সন্ত্রাসবাদের অভিযোগ অস্বীকার করে আবারও নিজেকে নির্দোষ দাবি করেছেন।

তিনি বলেন, ‘ভারত সরকার আন্তর্জাতিক পুলিশ সংস্থা ইন্টারপোলকে তার বিরুদ্ধে রেড এলার্ট জারির অনুরোধ করলেও তা প্রত্যাখ্যাত হয়েছে। এখান থেকেই বোঝা যায়, আমার বিরুদ্ধে ভারত সরকারের অভিযোগ কতোটা দুর্বল।’

এদিকে, ২৮ জুলাই মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী দাতুক সাইফুদ্দীন আব্দুল্লাহ বলেন, অর্থ আত্মসাতের মামলায় বিচারের মুখোমুখি করতে ভারতের প্রত্যার্পণের চিঠি পাওয়া সত্ত্বেও তাকে ফেরত পাঠাবে না মালয়েশিয়া।

আরপি

 

এশিয়া: আরও পড়ুন

আরও