ইন্দোনেশিয়ায় জোকো ফের নির্বাচিত

ঢাকা, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

ইন্দোনেশিয়ায় জোকো ফের নির্বাচিত

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:৫৯ পূর্বাহ্ণ, মে ২১, ২০১৯

ইন্দোনেশিয়ায় জোকো ফের নির্বাচিত

ইন্দোনেশিয়ায় ফের বিজয়ী হয়েছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো-মারুফ আমিন। মঙ্গলবার দেশটির নির্বাচন কমিশন (কেপিইউ) প্রাথমিকভাবে এই ফলাফল ঘোষণা করেছে।

সহিংসর আশঙ্কায় নির্ধারিত তারিখের একদিন আগে দিন শুরুর প্রথম কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই এই ফলাফল প্রকাশ করা হয় বলে খবর দিয়েছে বিবিসি।

ফলাফল ঘোষণাকে সামনে রেখে রাজধানী জাকার্তায় প্রায় ৩২ হাজার নিরাপত্তা সদস্য মোতায়েন করা হয়েছিল।

জোকোই নামে পরিচিত এই প্রেসিডেন্ট দ্বিতীয়বারের মতো তার প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক জেনারেল প্রাবোও সুবিয়ান্তো সানডিগাকে পরাজিত করলেন।

নির্বাচন কমিশনের তথ্যে, জোকোই-আমিন ৮৫.৬ মিলিয়ন ভোট (৫৫.৫ শতাংশ) পেয়েছেন। আর প্রাবোও সুবিয়ান্তো পেয়েছেন ৬৮.৬ মিলিয়ন ভোট (৪৪.৫ শতাংশ)।

জোকোই-আমিন বালিসহ ২১ প্রদেশে বিজয়ী হয়েছেন। বিপরীতে প্রাবোও মাত্র ১৩টি প্রদেশে জয় পেয়েছেন।

নির্বাচন কমিশনার হাশিম আসআরি বলেন, ‘প্রার্থীদের প্রতি ভোটারদের মতামতই আমরা প্রকাশ করেছি। সরকারের মর্জির ওপর নির্ভর করছে আনুষ্ঠানিক ফলাফল।’

তবে ফলাফলকে চ্যালেঞ্জ করতে আদালতে যাবেন কিনা, তা এখনো নিশ্চিত করেননি প্রাবোও। চূড়ান্ত গণনার আগে ‘ব্যাপক প্রতারণার’ অভিযোগ করে রাস্তায় রাস্তায় প্রতিবাদ বিক্ষোভ শুরু হতে পারে বলে সতর্ক করেছিলেন তিনি।

প্রচারণার সময় দু’পক্ষের মধ্যে তিক্ততার সৃষ্টি হলেও নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবেই অনুষ্ঠিত হয়। স্বাধীন পর্যবেক্ষকরা ১৭ এপ্রিলের ওই নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠ ছিল বলে মত দিয়েছেন।

নির্বাচন কমিশনার হাশিম আরও বলেন, ‘নির্বাচন নিয়ে বিতর্কের বিষয়টি আমরা ২৪ মে সাংবিধানিক আদালতে তুলে ধরব। সেখানে পরাজিত প্রার্থী কোনো আপত্তি না জানালে যত দ্রুত সম্ভব আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণা করা হবে।’

৫৭ বছর বয়সী জোকো উয়িদোদো ২০১৪ সালে প্রথমবারের মতো ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। ওই নির্বাচনেও তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার মধ্যদিয়ে তিনি প্রাবোওকে পরাজিত করেন।

এর আগে ২০১২ সালে জাকার্তার গভর্নর নির্বাচিত হয়ে তিনি আন্তর্জাতিকভাবে পরিচিত হয়ে ওঠেন। প্রথম মেয়াদে তার নেতৃত্বে ইন্দোনেশিয়ার অর্থনীতি স্থিতিশীলতা বজায় রেখে ক্রমাগত বৃদ্ধি পেয়েছে।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পাশাপাশি একইদিন জাতীয় ও স্থানীয় পরিষদের নির্বাচনও অনুষ্ঠিত হয়। ভোটাররা ২০ হাজার স্থানীয় ও জাতীয় আইনপ্রণেতাকেও বেছে নিয়েছেন।

আইএম

 

এশিয়া: আরও পড়ুন

আরও