ভুলে শিশুকে স্কুলবাসে রেখে গেল চালক, দম বন্ধ হয়ে মৃত্যু

ঢাকা, শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৬ আশ্বিন ১৪২৫

ভুলে শিশুকে স্কুলবাসে রেখে গেল চালক, দম বন্ধ হয়ে মৃত্যু

পরিবর্তন ডেস্ক ৭:৩৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৭, ২০১৮

ভুলে শিশুকে স্কুলবাসে রেখে গেল চালক, দম বন্ধ হয়ে মৃত্যু

থাইল্যান্ডে একটি স্কুলবাসে আটকে পড়ার পর গরমে দমবন্ধ হয়ে তিন বছর বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

 

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, স্কুলবাসের চালক ভুলে শিশুটিকে স্কুলবাসে রেখেই দরজা বন্ধ করে চলে যায়। পুলিশ বৃহস্পতিবার জানায়, তারা ওই চালককে আটক করেছে।

বুধবার বিকালে তিন বছরের নুরা নাদিয়ার মা তাকে স্কুল শেষে আনতে গেলে তাকে বলা হয় শিশুটি স্কুলে অনুপস্থিত ছিল। 

পরে মা ও শিক্ষকরা চালককে খুঁজে বের করলে সে তাদেরকে লক করে রাখা স্কুলবাসে নিয়ে যায়। স্কুলবাসের ভেতর তারা শিশুটির মৃতদেহ খুঁজে পান। 

‘মেয়েটার শরীর ফ্যাকাসে ছিল, কোনো আঘাতের চিহ্ন ছিল না। তবে নাকে সামান্য রক্তের দাগ ছিল। সে নিশ্চয়ই চারপাশে ধাক্কাধাক্কি করেছিল’ এএফপিকে বলেন সাই বুরা জেলার পুলিশ কমান্ডার মন্ট্রি কঙ্গয়াতমাই।

ময়নাতদন্তের রিপোর্ট উদ্ধৃত করে মন্ট্রি জানান, অপরিসর স্কুলবাসটির ভেতর গরম হওয়ায় ও বাতাসের অভাব থাকায় শিশুটি মারা গেছে।

স্কুলবাস থেকে সকালে সব বাচ্চা নেমেছে কিনা তা ওই ২৩ বছর বয়সী চালক সেটা দেখতে ভুলে যাওয়ার কথা স্বীকার করেছে বলেও জানান মন্ট্রি। 

অবহেলার কারণে মৃত্যুর দায়ে চালককে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

২০১২ থেকে ২০১৬ পর্যন্ত স্কুলবাস, প্রাইভেট কারের মধ্যে ভুলে শিশুকে আটকে রাখার ১৩টি ঘটনা ঘটেছে। সারা বিশ্বেই এই ঘটনাটি ঘটছে যাকে ‘ফরগটেন বেবি সিনড্রোম’ বলা হচ্ছে। ছয়টি ক্ষেত্রে এই ভুলে শিশুর মৃত্যু ঘটেছে। 

এমআর/এমএসআই