মিয়ানমার সেনা কর্মকর্তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করছে ইইউ

ঢাকা, রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৮ আশ্বিন ১৪২৫

মিয়ানমার সেনা কর্মকর্তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করছে ইইউ

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:৩৯ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৮

মিয়ানমার সেনা কর্মকর্তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করছে ইইউ

বিশেষ কায়দায় রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর ধর্ষণ, নির্যাতন ও হত্যাকাণ্ড চালানোর অভিযোগে মিয়ানমারের সেনা কর্মকর্তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে যাচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে এ নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

ইইউ’র দুই কূটনীতিকে বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের ওপর চালানো হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সেনা কর্মকর্তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রস্তুতি নিচ্ছে ইইউ।

ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা ও সম্পদ জব্দের মতো পদক্ষেপ নেওয়া হলে ইইউয়ের পক্ষ থেকে রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের সেনা কর্মকর্তাদের এই প্রথম শক্ত কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এর আগেই যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা এ ধরনের নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা দিয়েছে।

এক কূটনীতিক নাম প্রকাশ না করার শর্তে রয়টার্সকে জানান, ইইউ পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা আলোচনা করে নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি ঠিক করবেন। এ ছাড়া নব্বইয়ের দশকে মিয়ানমারের ওপর ইইউ যে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তা আরো জোরদার করা যায় কি না সে বিষয়েও আলোচনা হতে পারে বলে জানান ওই কূটনীতিক।

মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্র জো হতয়ের সঙ্গে এ ব্যাপারে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তা সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছে রয়টার্স। তাছাড়া দেশটির সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল তুন তুন নিয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তিনি এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

প্রসঙ্গত, গত বছরের আগস্টে কয়েকটি চেকপোস্টে হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর সাঁড়াশি অভিযান শুরু দেশটির সেনাবাহিনী। এর সঙ্গে যোগ দেয় দেশটির উগ্রপন্থী বৌদ্ধরা।

অভিযানে সাত হাজারের বেশি রোহিঙ্গা নিহত হয় বলে জানায় আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলো। এ ছাড়া কয়েক হাজার রোহিঙ্গা আহত হয়েছে। জাতিসংঘ ঘোষিত ‘জাতিগত নিধন’ অভিযান থেকে জীবন বাঁচাতে এ পর্যন্ত প্রায় সাত লাখ লোক বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে।

আরপি