প্রতিদিনের সুরক্ষায় নবীজির শেখানো দুআ

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

প্রতিদিনের সুরক্ষায় নবীজির শেখানো দুআ

পরিবর্তন ডেস্ক ৬:২১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৪, ২০১৯

প্রতিদিনের সুরক্ষায় নবীজির শেখানো দুআ

যেকোনো ক্ষতিকর প্রাণী, মানুষ বা জিনের অনিষ্টতা থেকে বাঁচতে রাসুলুল্লাহ (সা.) সাহাবাদেরকে একটি দুআ শিখিয়ে দিতেন। কোন কোন বর্ণনা মতে, এ দুআটি স্বয়ং জিবরাঈল (আ.) রাসুলুল্লাহ (সা.) কে শিখিয়েছেন। দুআটি নিম্নরূপ-

أعُوْذُ بِكَلِمَاتِ اللهِ التَّامَّاتِ مِنْ شَرِّ مَا خَلَقَ

উচ্চারণ : আউজু বিকালিমাতিল্লাহিত তাম্মাতি মিন শাররি মা খালাকা। 

অর্থ: আমি আল্লাহ তাআলার পরিপূর্ণ বাক্যাবলীর মাধ্যমে তাঁর সৃষ্টির সকল অনিষ্টতা থেকে আশ্রয় নিচ্ছি। (মুসলিম, তিরমিজী, আহমাদ)

অন্য বর্ণনায় এসেছে,

جاء رجل إلى النبي صلى الله عليه وسلم فقال : يا رسول الله ! ما لقيت من عقرب لدغتني البارحة . قال أما لو قلت حين أمسيت : أعوذ بكلمات الله التامات من شر ما خلق ، لم تضرك

এক ব্যক্তি নবী কারীম (সা.) এর কাছে এসে বলল, গত রাতে আমাকে একটি বিচ্ছু দংশন করেছে। রাসূলুল্লাহ (সা.) তাকে বললেন, আমি কি তোমাকে বলিনি যখন সন্ধ্যা হবে তখন তুমি বলবে, আউজু বিকালিমাতিল্লাহিত তাম্মাতি মিন শাররি মা খালাকা। তাহলে তোমাকে কোন কিছু ক্ষতি করতে পারতো না। (মুসলিম, হাদীস নং-২৭০৯)

এমনিভাবে কেউ যখন কোন স্থানে যায় আর এ দুআটি পাঠ করে তাহলে তাকে কোন কিছু ক্ষতি করতে পারবে না।

রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন,

 من نزل منزلا ثم قال : أعوذ بكلمات الله التامات من شر ما خلق ، لم يضره شيء ، حتى يرتحل من منزله ذلك

যে ব্যক্তি কোন স্থানে অবতরণ করল অতঃপর বলল, “আউজু বিকালি মাতিল্লাহিত তাম্মাতি মিন শাররি মা খালাকা” (আমি আল্লাহ তাআলার পরিপূর্ণ বাক্যাবলীর মাধ্যমে তাঁর সৃষ্টির সকল অনিষ্টতা থেকে আশ্রয় নিচ্ছি) তখন তাকে কোন কিছু ক্ষতি করতে পারবে না, যতক্ষণ সে ওখানে অবস্থান করবে। (মুসলিম, খাওলা বিনতে হাকীম থেকে বর্ণিত)

এমএফ/

 

আমল / জীবন পাথেয়: আরও পড়ুন

আরও