কবর যিয়ারতের দুআ ও নিয়ম

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

কবর যিয়ারতের দুআ ও নিয়ম

পরিবর্তন ডেস্ক ৪:৩২ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৮, ২০১৯

কবর যিয়ারতের দুআ ও নিয়ম

কবর যিয়ারত করা সুন্নত। নবীজি (সা.) কবর যিয়ারত করতে বলেছেন। এটি হৃদয়কে বিগলিত করে। চক্ষুকে করে অশ্রুসিক্ত। স্মরণ করিয়ে দেয় মৃত্যু ও আখিরাতের কথা। ফলে এর দ্বারা অন্যায় থেকে তওবা এবং নেকির প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি হয়। সৃষ্টি হয় পরকালীন মুক্তির প্রেরণা।

শুধু এসকল উদ্দেশ্যেই শরীয়তে কবর যিয়ারতের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। নয়তো ইসলামের সূচনালগ্নে কবর যিয়ারত নিষিদ্ধ ছিল। রাসুল (সা.) ইরশাদ করেন,

كُنْتُ نَهَيْتُكُمْ عَنْ زِيَارَةِ الْقُبُورِ فَزُورُوهَا فَإِنَّهَا تُذَكِّرُ الْآخِرَةَ

“আমি তোমাদের এর আগে কবর যিয়ারতে নিষেধ করেছিলাম, এখন থেকে কবর যিয়ারত করো। কেননা তা আখিরাতের কথা স্মরণ করিয়ে দেয়।”–সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং:১৫৭১

কবর যিয়ারতের দুআ: হযরত আবু হুরায়রা (রা.) সূত্রে বর্ণিত, তিনি বলেন, একদিন রাসুল (সা.) একটি কবর যিয়ারতে যান এবং বলেন,

السَّلامُ عَلَيْكُمْ دَار قَومٍ مُؤْمِنينِ وإِنَّا إِنْ شَاءَ اللَّه بِكُمْ لاحِقُونَ

উচ্চারণ: আসসালামু আলাইকুম দ্বারা ক্বাওমিম মুমিনিন, ওয়া ইন্না ইনশাআল্লাহু বিকুম লা-হিকুন।

অর্থ: হে মুমিনদের ঘর! তোমাদের উপর শান্তি বর্ষিত হোক। ইনশাআল্লাহ, আমরাও তোমাদের সঙ্গে মিলিত হবো।–সহীহ মুসলিম, হাদীস নং:২৪৯

কবর যিয়ারতের নিয়ম: কবরস্থানে গেলে প্রথমে কবর যিয়ারতের এই দুআটি পড়বে। এরপর কবরবাসীর ইসালে সওয়াবের নিয়তে কিছু দরুদ শরীফ এবং পবিত্র কুরআন থেকে সূরা ফাতিহা, আয়াতুল কুরসি, সূরা ইখলাস ও যেসব সূরা সহজ মনে হয় পড়ে মাইয়্যেতের মাগফিরাতের জন্য দুআ করবে।

উল্লেখ্য যে, কবরের দিকে ফিরে দুই হাত তুলে দুআ করা ঠিক নয়। তাই কবরের দিকে পিঠ দিয়ে কিবলামুখী হয়ে দুআ করবে। (ফাতাওয়ায়ে আলমগিরি খণ্ড ৫, পৃষ্ঠা ৩৫০, কিতাবুল কারাহিয়্যা) কেউ চাইলে হাত না তুলেও মনে মনে দুআ করতে পারবে।

এছাড়া, কবরবাসীর কাছে কিছু কামনা করা, সালাত আদায় করা বা সিজদা করা, তার উসিলায় মুক্তি প্রার্থনা করা, সেখানে দান-সদকা ও মানত করা, গরু-ছাগল, মোরগ ইত্যাদি দেওয়া বা কোরবানি করা ইত্যাদি সবকিছুই শিরকের অন্তর্ভুক্ত। তাই কোনো কবর ঘিরে এমনটি করা পুরোপুরি নিষিদ্ধ।

যারা কবরে চলে গেছেন, তারা তাদের প্রতিফলের কাছে পৌঁছে গেছেন। আল্লাহ তাদের ক্ষমা করুন। আর যারা বেঁচে আছি, জীবনের শেষে কবরের গন্তব্যে আমাদের যাত্রা। উপযুক্ত আমলসহ আল্লাহ আমাদেরকে কবরস্থ হওয়ার তাওফিক দান করুন। আমীন ইয়া রাব্বাল আলামীন।

এমএফ/

 

আমল / জীবন পাথেয়: আরও পড়ুন

আরও